• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মমতার ভিডিয়ো কনফারেন্স

সভাপতি তাহেরই, কোঅর্ডিনেটর চার

1
আবু তাহের খান ও সৌমিক হোসেন—ফাইল চিত্র

রাজ্য জুড়ে একাধিক জেলায় তৃণমূলের বড়সড় রদবদল হলেও মুর্শিদাবাদের জেলা সভাপতি পদে থাকলেন আবু তাহের খান। সঙ্গে জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান পদে বহাল থাকলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা সাগরদিঘি বিধায়ক সুব্রত সাহা। এ ছাড়া অরিৎ মজুমদারকে দলের জেলা কোয়ার্ডিনেটর পদে বহাল রাখার পাশাপাশি আরও তিন জনকে দলের কোঅর্ডিনেটর করা হয়েছে। অরিৎ মজুমদারের পাশাপাশি অশোক দাস, জঙ্গিপুরের সাংসদ খলিলউর রহমান ও ডোমকল পুরসভার প্রাক্তন পুরপ্রধান সৌমিক হোসেন জেলা কোয়ার্ডিনেটর হলেন। 
অশোক দাস দেখবেন মুর্শিদাবাদ, হরিহরপাড়া, কান্দি, ভরতপুর ও ডোমকল। খলিলুর রহমান দেখবেন ফরাক্কা, সুতি, জঙ্গিপুর, রঘুনাথগঞ্জ, লালগোলা, নবগ্রাম, খড়গ্রাম, জলঙ্গি। অরিত মজুমদার দেখবেন বড়ঞা, রেজিনগর, বেলডাঙা, নওদা, ভরতপুর। সৌমিক দেখবেন শমসেরগঞ্জ, সাগরদিঘি, ভগবানগোলা ও রানিনগর বিধানসভা এলাকা। বৃহস্পতিবার ভিডিয়ো বৈঠকে এমন নির্দেশ দিয়েছেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার বিকেলে দলনেত্রীর সঙ্গে ভিডিয়ো বৈঠকে মুর্শিদাবাদ থেকে এই ৬ জনই অংশ নিয়েছিলেন। দলনেত্রী সেখানেই এই রদবদলের কথা বলেছেন। আগামী দিনে শাখা সংগঠনে নেতৃত্বের রদবদল করার কথাও নেত্রী ঘোষণা করেছেন। একই সঙ্গে তিনি রাজ্য জুড়ে দলের জেলা পর্যবেক্ষক পদটি তুলে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন। স্বাভাবিক ভাবে শুভেন্দু অধিকারী আর জেলা পর্যবেক্ষ পদে থাকলেন না।
অন্য দিকে জেলা যুব তৃণমূলের সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে শমসেরগঞ্জের বিধায়ক আমিরুল ইসলামকে রাজ্য যুব তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। যুব তৃণমূলের জেলা সভাপতি করা হয়েছে রানিনগর ১ ব্লক যুব তৃণমূলের সভাপতি আইনজীবী ইমতিয়াজ কবীরকে। 
জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা মুর্শিদাবাদের সাংসদ আবু তাহের খান বলেন, ‘‘দলনেত্রী সভাপতি চেয়ারম্যান এবং চারজন কোঅর্ডিনেটরকে নিয়ে কমিটি গঠন করে দিয়েছেন। আগামী দিনে এই কমিটি দলের কাজকর্ম 
পরিচালনা করবে।’’ তৃণমূলের এই পরিবর্তনে নাম নেই জঙ্গিপুরের কোনও নেতার। নেই মন্ত্রী জাকির হোসেনরও নাম।
২১ জুলাই দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে নেতাকর্মীদের ঝাপিয়ে পড়ার নির্দেশ দেন। গত লোকসভা নির্বাচনে জেলার তিনটি আসনের মধ্যে দু’টি শাসকদলের ঝুলিতে গিয়েছে। জেলার ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের অধিকাংশ শাসকদলের হাতে। সামনে বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে পুরসভা নির্বাচনও রয়েছে। তাই বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে রাজ্য জুড়ে দলে ব্যাপক রদবদল 
করেছেন তৃণমূল নেত্রী।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন