খাল সংস্কারের দাবিতে রাস্তা অবরোধ করলেন কয়েক’শো বাসিন্দা। মঙ্গলবার দুপুরে নদিয়ার ধানতলা থানার দত্তপুলিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের মনসাহাটি এলাকার ওই অবরোধ হয়। অবরোধকারীদের অধিকাংশই কৃষক। দুপুর বারোটা থেকে ওই অবরোধের ফলে রানাঘাট-কৃষ্ণনগর ভায়া দত্তপুলিয়া রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। রাস্তা দু’দিকে দাঁড়িয়ে যায় বহু গাড়ি। খবর পেয়ে আসেন পুলিশ ও প্রশাসনের কর্তারা। ঘণ্টা দেড়েক পরে খাল সংস্কারের বিষয়টি নিয়ে আলোচনার আশ্বাসে অবরোধ ওঠে।

অবরোধকারীদের অভিযোগ, দীর্ঘ দিন ধরে জোটের খাল সংস্কার করা হচ্ছে না। উল্টে খালপাড় দখল করে ব্যবসা করছেন কিছু ব্যবসায়ী। এ ভাবে চলতে থাকলে বর্ষায় অন্তত হাজার বিঘা চাষের জমি জলমগ্ন হয়ে পড়বে। বিষয়টি প্রশাসনকে বারবার জানানো হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি, তাই বাধ্য হয়ে অবরোধ— বলছেন অবরোধকারীরা। সমস্যার কথা মেনে নিয়ে দত্তপুলিয়া গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান তৃণমূলের তাপস তরফদার বলেন, ‘‘একশো দিনের কাজে খাল সংস্কার শুরু হয়েছিল। এখনও সেই টাকা পাওয়া যায়নি। তাই নতুন করে কাজ বন্ধ রয়েছে।’’ খালপাড় দখল করে ব্যবসা করার বিষয়টিও স্থানীয় প্রশাসনের অজানা নয়। এ বিষয়ে প্রধানের বক্তব্য, ‘‘ওই ব্যবসায়ীদের নিষেধ করা হয়েছিল। কিন্তু, তারা বিষয়টিতে গুরুত্ব দেয়নি। এ বার ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’

রানাঘাট ২ ব্লকের দত্তপুলিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের শিলবেড়িয়ার জোটের খাল কাছেই ইছামতি নদীর সঙ্গে মিশেছে। বর্ষার সময়ে বিভিন্ন গ্রামের জল এই খাল দিয়েই বের হয়। এমন গুরুত্বপূর্ণ খাল দীর্ঘ দিন সংস্কার হয় না। সম্প্রতি তা বেদখল হতে বসেছে। স্থানীয় বাসিন্দা দেবাশিস সরকার বলেন, ‘‘এর ফল ভুগছি আমরা। চাষের জমির জল নামছে না। ফসল নষ্ট হচ্ছে।’’ দ্রুত পরিস্থিতি না পাল্টালে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন স্থানীয়েরা। বিডিও সায়ন্তন ভট্টাচার্য দ্রুত সমস্যার সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন।