‘বাঘিনী’র কাছ থেকে তার মায়ের নির্বাসনের গল্প পর্দায় বলেছেন পরিচালক চূর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়। বাঘিনী একটা গোলগাল সাদা বেড়াল। তার ‘মা’ এক বিতর্কিত লেখিকা। সে জন্যই দেশ থেকে তাঁকে এক প্রকার তাড়িয়েই দেয় সমাজ। সেই ছবি এ বার অস্কারের দরবারে জায়গা করে নিতে চলেছে। ‘বেস্ট ফরেন ল্যাঙ্গুয়েজ ফিল্ম ক্যাটাগরি’র নমিনেশনে পাঠানো হয়েছে এই ছবি। পরিচালক হিসাবে প্রথম ছবিতেই আন্তর্জাতিক আঙিনার এই সাফল্যে স্বভাবতই খুশি তিনি। আনন্দবাজারকে তিনি বলেন, ‘‘বাংলা ছবি এমন প্রচার তো পায় না। আর ভাল ছবি তৈরির ক্ষেত্রে বাজেটও একটা বড় সমস্যা।’’

পরিচালনার পাশাপাশি ছবিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন চূর্ণী। এই ছবির জন্য ইতিমধ্যেই দু’টি জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। ফিল্ম ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া যে সিলেকশন কমিটি তৈরি করেছে তাদের কাছে একেবারে শেষ মুহূর্তে নিজের ছবিটি পাঠিয়েছে টিম ‘নির্বাসিত’।

 কিন্তু কেন এত দেরি করলেন চূর্ণী? ‘‘আসলে এটা আমার প্রথম ছবি। আর সত্যি বলছি, অস্কারে পাঠানোর পদ্ধতিটা সম্পর্কে আমি কিছুই জানতাম না।’’—অকপট পরিচালক। সব মিলিয়ে এখন ‘বাঘিনী’ আর তার মায়ের অস্কার জয়ের স্বপ্ন দেখছে টলিউড।