বাহাত্তর বছরের স্বাধীনতাকে গান দিয়ে নতুন করে উদযাপন করার পরিকল্পনা করেছেন রাঘব চট্টোপাধ্যায়। নতুন প্রজন্মের হাত ধরে ‘বন্দেমাতরম্’গানকে নতুন আঙ্গিকে পৌঁছে দিতে চাইছেন তিনি।
‘‘আসলে স্বাধীনতা নিয়ে এই প্রথম কিছু কাজ করলাম। আর বঙ্কিমচন্দ্র এবং আমার বাড়ি নৈহাটিতে। ভৌগোলিক একটা সূত্র আছেই। আর নতুন প্রজন্মের কথা ভেবেই রবীন্দ্রনাথের এই সুরে স্যাক্সোফোন ব্যবহার করার কথা ভেবেছি। আমার দুই মেয়ে আর আমার ছাত্রছাত্রীদের এই গানের সঙ্গে যুক্ত করেছি।’’ বলছেন রাঘব।
গত প্রজন্ম থেকে আগামী প্রজন্মের কাছে গভীর অনুভূতির সুন্দর এক মেলবন্ধনের প্রয়াসে রাঘবের এই উদ্যোগ। যেখানে রয়েছে দেশাত্মবোধ, সহমর্মিতা ও আত্মত্যাগের আরও এক প্রেরণা।এই মিউজিক ভিডিওতে আনা হয়েছে বেশ কিছু বৈচিত্র। কী ভাবে? ‘‘কানাডাবাসী জোনাথান কে এই গানের সুর অক্ষুণ্ণ রেখে বন্দেমাতরম্ গানের সঙ্গে বাজিয়েছেন। প্রত্যুষ বন্দ্যোপাধ্যায় এই গানের আয়োজক।’’

আরও পড়ুন, তোকে মিস করছি, ছেলের জন্মদিনে বার্তা দিলেন ক্যানসার আক্রান্ত সোনালি

নৈহাটির বঙ্কিম ভবনের অনুমতি নিয়ে এই কাজ করেছেন রাঘব। তাঁর সঙ্গে আছেন দুই মেয়ে আহিরি আর আনন্দী। মিউজিক ভিডিয়োতেও সুরের সঙ্গে ছড়িয়ে আছে বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের প্রতি শ্রদ্ধা।
‘‘সাধারণ মানুষের জন্য, স্বাধীনতা ও সম্প্রীতির জন্য রাঘবের এই উদ্যোগে আমরা হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলাম। প্রত্যুষ খুব চমৎকার করে পুরো বিষয়টা সাজিয়েছেন। আর রাঘবের গান অনেক মানুষের মধ্যে পৌঁছে যাবে। আমি আশাবাদী,’’বললেন আশা অডিয়োর মহুয়া লাহিড়ী।
স্বাধীনতার সকাল ভরে উঠবে ‘বন্দেমাতরম্’-এর আনকোরা আবেগে।