×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বিনোদন

স্রেফ সলমনের হেয়ার স্টাইল অপছন্দ হওয়ায় ফিল্ম ছাড়তে চেয়েছিলেন রিচা!

নিজস্ব প্রতিবেদন
১৫ জানুয়ারি ২০২১ ০১:৪৪
অভিনেত্রী রিচা চড্ডা বরাবরই স্পষ্টবক্তা। কখনও বলিউডে যৌন হেনস্থার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন, কখনও বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন। ভিনধর্মী আলি ফজলের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক নিয়েও অকপট তিনি।

এই রিচাই আবার সলমন খানের মতো দেখতে হতে চান না বলে একটি ফিল্ম থেকেই সরে যেতে চেয়েছিলেন।
Advertisement
বলিউডের ভাইজান সলমনের সম্পর্কে প্রকাশ্যে সচরাচর এমন কথা বলার সাহস কেউ রাখেন না।

বরং সলমনের আদবকায়দা, হেয়ার স্টাইল সব কিছুকেই অনুসরণ করেন অনেকে, তাঁর মতো দেখতে হতে চান। সেখানে রিচার এমন মন্তব্যের কারণ কী?
Advertisement
সম্প্রতি ‘ম্যাডাম চিফ মিনিস্টার’ নামে এক ফিল্মের শ্যুটিং শেষ হল। ফিল্মের মুখ্য ভুমিকায় রয়েছেন রিচা।

ফিল্মটি এ মাসেই মুক্তি পাওয়ার কথা। এর জন্য রিচার চুল ছোট করার প্রয়োজন ছিল।

রিচা নিজের কাজের সঙ্গে কোনও রকম সমঝোতা করেন না। তাই তিনি নিজের চুল কেটে ফেলার মনস্থির করে ফেলেন।

কিন্তু বাধ সাধে তাঁর বিয়ে। গত এপ্রিলে প্রেমিক আলির সঙ্গে তাঁর বিয়ে হওয়ার দিন স্থির হয়েছিল।

রিচা যদি নিজের চুল কেটে ফেলতেন তা হলে বিয়ের দিন আসতে আসতে তাঁর হেয়ার স্টাইল অনেকটা মাশরুমের মতো দেখতে হত।

নিজের বিয়েতে কোনও ভাবেই নিজেকে এ রকম রূপে দেখতে চাইছিলেন না তিনি। তাঁর কথায়, এটা অনেকটা ‘তেরে নাম’ ফিল্মে সলমনের হেয়ার স্টাইলের মতো হয়ে যেত।

সলমনের মতো নিজেকে দেখতে তিনি একেবারেই চান না। ফলে চুল কাটতে রাজি ছিলেন না। প্রয়োজনে ফিল্ম ছাড়তেও রাজি ছিলেন। পরে পুরো ফিল্মে নকল চুল লাগিয়ে অভিনয় করেন তিনি।

অতিমারির কারণে গত এপ্রিলে রিচার অবশ্য বিয়ে হয়নি। এই পরিস্থিতি কাটলে তার পরই বিয়ের অনুষ্ঠান করতে চান রিচা এবং আলি।

তাঁরা আগে যে বাড়িতে থাকতেন মার্চ মাসের পর সেই বাড়ির লিজের মেয়াদও শেষ হয়।

আপাতত আরব সাগরের তীরে নিজেদের ভালবাসার বাড়ি খুঁজে পেয়েছেন রিচা এবং আলি। সেখানেই একসঙ্গে কাটাচ্ছেন তাঁরা।