Advertisement
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
aids

Cancer Cure: একই সঙ্গে এডস ও ক্যানসার থেকে মুক্তি, বিরল চিকিৎসায় সাফল্য চিকিৎসকদের

গোটা বিশ্বে কেবল চতুর্থ ব্যক্তি যিনি এডস থেকে মুক্তি পেলেন। ওই ব্যক্তি ১৯৮৮ সালে এডস রোগাক্রান্ত হন। ২০১৯ সালে ব্লাড ক্যানসার ধরা পড়ে তাঁর।

চিকিৎসা বিজ্ঞানে নয়া দিশা?

চিকিৎসা বিজ্ঞানে নয়া দিশা? ছবি: সংগৃহীত

সংবাদ সংস্থা
ক্যালিফোর্নিয়া শেষ আপডেট: ২৯ জুলাই ২০২২ ১১:৪৩
Share: Save:

বিশ্বের চতুর্থ ব্যক্তি হিসেবে এইচআইভি ভাইরাস থেকে মুক্তি পেলেন ৬৬ বছর বয়সি এক ব্যক্তি। শুধু এডস নয়, ওই ব্যক্তি ক্যানসারেও আক্রান্ত ছিলেন বলে খবর। আপাতত তাঁর দেহে ক্যানসারেরও কোনও লক্ষণ নেই বলে জানিয়েছেন তাঁর চিকিৎসকরা। আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়ার ঘটনা।

শুক্রবার কানাডার মন্ট্রিয়েলে শুরু হওয়া বিশ্ব এডস সম্মেলনে এই খবর প্রকাশ করেন বিজ্ঞানীরা। এই নিয়ে গোটা বিশ্বে কেবল চতুর্থ ব্যক্তি যিনি এডস থেকে মুক্তি পেলেন। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই ব্যক্তি ১৯৮৮ সালে এডস রোগে আক্রান্ত হন। ২০১৯ সালে ব্লাড ক্যানসার ধরা পড়ে তাঁর।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, চিকিৎসার জন্য তাঁরা বোন ম্যারো প্রতিস্থাপন করার সিদ্ধান্ত নেন। সহজ ভাষায় বলতে গেলে, হাড়ের মজ্জার যে অংশ থেকে রক্তকণিকা তৈরি হয়, সেই অংশ প্রতিস্থাপন করা হয় এই প্রক্রিয়ায়। বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষায় মিল পাওয়া গেলে সুস্থ ব্যক্তির দেহ থেকে ‘স্টেম সেল’ সংগ্রহ করে রোগীর দেহে কৃত্রিম ভাবে সেই ‘স্টেম সেল’ প্রবেশ করানো হয়। এই ক্ষেত্রে যিনি স্টেম সেল দিয়েছিলেন সেই ব্যক্তির দেহে সিসিআর ৫ নামক একটি জিন অনুপস্থিত ছিল। এই জিনের অনুপস্থিতি মানবদেহকে এইচআইভি ভাইরাসকে প্রতিহত করতে সহায়তা করে। ফলে বোন ম্যারো প্রতিস্থাপন করার পর সুস্থ হয়ে গিয়েছেন রোগী।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE