Advertisement
১৪ জুলাই ২০২৪
Bharat Jodo Yatra

অখিলেশরা রাজি নন, রাহুল-সঙ্গী হবেন মেহবুবারা

রাহুল নিজে চিঠি লিখে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতানেত্রীকে ভারত জোড়ো যাত্রায় আহ্বান জানিয়েছিলেন। তৃণমূল আগেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাঁরা পদযাত্রায় যোগ দেবেন না।

অখিলেশ যাদব।

অখিলেশ যাদব। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৮ ডিসেম্বর ২০২২ ০৭:২৫
Share: Save:

অখিলেশ যাদব, মায়াবতী বা জয়ন্ত চৌধরিরা রাহুল গান্ধীর ভারত জোড়ো যাত্রায় যোগ দেবেন না। তবে কাশ্মীরে ফারুক ও ওমর আবদুল্লার সঙ্গে পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতিও রাহুলের যাত্রায় যোগ দেবেন।

রাহুল নিজে চিঠি লিখে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতানেত্রীকে ভারত জোড়ো যাত্রায় আহ্বান জানিয়েছিলেন। তৃণমূল আগেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাঁরা পদযাত্রায় যোগ দেবেন না। রাজনৈতিক শিবিরের খবর, সমাজবাদী পার্টির অখিলেশ যাদব, আরএলডি-র জয়ন্ত চৌধরিও যাত্রা থেকে দূরত্ব বজায় রাখতে চাইছেন। বিএসপি নেত্রী মায়াবতী এমনিতেই বিজেপির দিকে ঝুঁকে বলে কংগ্রেস নেতাদের অভিযোগ। তাই তিনি রাহুলের সঙ্গে যাত্রায় যোগ দেবেন, এমনটা কংগ্রেস নেতারা আশা করেননি। তবে অখিলেশ, জয়ন্তরা না এলেও তাঁদের দলের কেউ এই যাত্রায় যোগ দেবেন বলে কংগ্রেস নেতারা এখনও আশা করছেন। উত্তরপ্রদেশে যোগী সরকারের প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী, বিজেপি নেতা দীনেশ শর্মাকেও যাত্রায় আহ্বান জানানো হয়েছে। তবে তাঁর কাছে আমন্ত্রণ গিয়েছে লখনউ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন অধ্যাপক হিসেবে।

দিল্লি পৌঁছনোর পর আপাতত ভারত জোড়ো যাত্রায় বিরতি চলছে। ৩ জানুয়ারি ফের রামলীলা ময়দান থেকে যাত্রা শুরু হয়ে উত্তরপ্রদেশে ঢুকবে। অখিলেশ সোমবারই জানিয়েছিলেন, তাঁদের ভাবনা এই যাত্রার সঙ্গে রয়েছে। কিন্তু রাহুলের সঙ্গে হেঁটে এসপি জাতীয় রাজনীতিতে কংগ্রেসের নেতৃত্ব মেনে নিতে চলেছে, এমন কোনও বার্তা অখিলেশ দিতে চাইছেন না। তৃণমূল সূত্রের বক্তব্য, এর ফলে বিজেপি বিরোধী শিবিরে দু’টি বিভাজন স্পষ্ট। এক, যারা কংগ্রেস তথা ইউপিএ-র শরিক ছিল বা রয়েছে। দুই, যাদের সঙ্গে কংগ্রেসের সঙ্গে রাজনৈতিক সমঝোতা নেই। সিপিএমের শীর্ষ নেতৃত্বের যাত্রার প্রতি মানসিক সমর্থন থাকলেও কেরলে কংগ্রেস বনাম সিপিএমের লড়াইয়ের কথা ভেবে তাঁরা এই যাত্রায় যোগ দেবেন না। যদিও কাশ্মীরের সিপিএম নেতা ইউসুফ তারিগামি যাত্রায় যোগ দেবেন বলে কংগ্রেসের দাবি।

এসপি-র মুখপাত্র ঘনশ্যাম তিওয়ারি এ দিন বলেছেন, ভারত জোড়ো যাত্রার বার্তা সংবিধানেরই বার্তা। কিন্তু এসপি একে রাজনৈতিক ঐক্য গড়ে তোলার আন্দোলন হিসেবে দেখতে চায় না। আরএলডি প্রধান জয়ন্ত জানিয়েছেন, অন্য কাজ থাকায় তিনি যোগ দিচ্ছেন না। তবে এর সঙ্গে রাজনীতির সম্পর্ক নেই।

কংগ্রেস নেতারা আজ কাশ্মীরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। জম্মু-কাশ্মীরে শেষ সরকারে বিজেপি-পিডিপি জোট হয়েছিল। সেই পিডিপি নেত্রী মেহবুবা আজ নিজেই জানিয়েছেন, তিনি রাহুলের অদম্য সাহসকে কুর্নিশ জানাচ্ছেন। এর ফলে জম্মু-কাশ্মীরের তিন জন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী রাহুলের যাত্রায় যোগ দেবেন। গুলাম নবি আজাদের সঙ্গে কংগ্রেস ছেড়ে যাওয়া কিছু নেতাও ফিরে এসে রাহুলের যাত্রায় যোগ দিতে পারেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Bharat Jodo Yatra akhilesh yadav Rahul Gandhi
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE