Advertisement
০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Agni-5

অগ্নি-৫ পরীক্ষার আগেই ভারত মহাসাগর থেকে উঁকিঝুঁকি চিনা ‘গুপ্তচর’ জাহাজের! নজর রাখছে ভারত

ভারত থেকেই চিনের ভিতরে গিয়ে আঘাত হানতে সক্ষম অগ্নি-৫ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র। মনে করা হচ্ছে এই ক্ষেপণাস্ত্রের ক্ষমতা কাছ থেকে দেখতে ফের ভারত সাগরে উঁকিঝুঁকি দিচ্ছে চিনা জাহাজ।

১৫-১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে ওড়িশার আব্দুল কালাম দ্বীপ থেকে অগ্নি-৫ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করার কথা।

১৫-১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে ওড়িশার আব্দুল কালাম দ্বীপ থেকে অগ্নি-৫ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করার কথা। ছবি: পিটিআই ।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০২২ ১০:৪১
Share: Save:

অত্যাধুনিক অগ্নি-৫ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা করতে চলেছে ভারত। সেই মর্মে আগে থেকেই বঙ্গোপসাগরকে ‘নো-ফ্লাই জোন’ ঘোষণা করা হয়েছে সরকারের তরফে। কিন্তু তার মধ্যেই ভারত মহাসাগরে সন্দেহভাজন চিনা ‘গুপ্তচর’ জাহাজের আনাগোনা চিন্তা বাড়াচ্ছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের। ১৫-১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে ওড়িশার উপকূলে আব্দুল কালাম দ্বীপ থেকে অগ্নি-৫ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করার কথা। কিন্তু এর মধ্যেই ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলে চিনা জাহাজের গতিবিধি সন্দেহ বাড়াচ্ছে।

Advertisement

নরওয়ের সংস্থা মেরিটাইম অপটিমা থেকে সংগৃহীত তথ্য অনুসারে, চিনা জাহাজ ‘ইউয়ান ওয়াং-৫ সোমবার ভারত মহাসাগরে প্রবেশ করেছে। সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বর্তমানে সেই জাহাজটি ইন্দোনেশিয়ার জাভা দ্বীপের উপকূলে ভারত মহাসাগরের দক্ষিণ দিকে রয়েছে। এর আগেও ভারত মহাসাগরে প্রবেশ করতে দেখা গিয়েছে এই চিনা জাহাজকে। যদিও চিন বার বার দাবি করেছে, এই জাহাজটিকে গবেষণামূলক কাজের জন্য রাখা হয়েছে। গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ খারিজ করা হয়েছে সে দেশের তরফে।

আন্দামান ও নিকোবর অঞ্চলে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা সম্পর্কে ভারত একটি ‘নোটাম’ (বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করে নোটিস) জারি করার মাত্র এক সপ্তাহ পরে ইউয়ান ওয়াং-৫-এর গতিবিধি নিয়ে এই খবর প্রকাশ্যে আসে।

চিনের এই ‘গবেষণা’ জাহাজটি ইউয়ান ওয়াং-শ্রেণির চারটি জাহাজের মধ্যে একটি। এই জাহাজ উপগ্রহ এবং আন্তর্মহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের গতিবিধি ট্র্যাক করতে পারদর্শী।

Advertisement

ভারত সরকারের তরফে দাবি করা হয়েছে, অগ্নি-ভি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পাঁচ হাজার কিলোমিটার দূরে থাকা লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম। অর্থাৎ, ভারত থেকেই এই ক্ষেপণাস্ত্র চিনের ভিতরে গিয়ে আঘাত হানতে সক্ষম। মনে করা হচ্ছে, অগ্নি-ভি-র আঘাত হানার ক্ষমতা নিয়ে চিনের অন্দরে যথেষ্ট উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। আর তাই এই ক্ষেপণাস্ত্রের ক্ষমতা কাছ থেকে দেখতেই ফের ভারত সাগরে উঁকিঝুঁকি দিচ্ছে চিনা জাহাজ।

এই আবহে অগ্নি-ভি পরীক্ষার সময় পিছিয়ে দেওয়া যায় কি না, তা নিয়েও প্রতিরক্ষা মন্ত্রকে আলোচনা শুরু হয়েছে বলে মন্ত্রক সূত্রে খবর।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.