Advertisement
০৩ মার্চ ২০২৪
Krishna River Water Dispute

কাবেরীর পরে এ বার কৃষ্ণা নদীর জলবণ্টন ঘিরে বিবাদ, সুপ্রিম কোর্টে গেল অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার

অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি ব্রিজেশ কুমারের নেতৃত্ব গঠিত কৃষ্ণা জলবণ্টন ট্রাইব্যুনাল কর্নাটকের আলমাত্তি বাঁধের উচ্চতা ৫১০ মিটার থেকে বাড়িয়ে ৫২৪ মিটার করার অনুমতি দিয়েছিল।

কর্নাটকের আলমাত্তি বাঁধ।

কর্নাটকের আলমাত্তি বাঁধ। — ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
বিজয়ওয়াড়া শেষ আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০২৩ ২০:০৪
Share: Save:

জলবণ্টন ঘিরে আবার সংঘাতের আবহ দক্ষিণ ভারতে। কাবেরীর পরে এ বার কৃষ্ণা নদীকে ঘিরে। অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ওয়াইএস জগন্মোহন রেড্ডির সরকার মঙ্গলবার জলবণ্টন বিবাদের সমাধান চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটক এবং মহারাষ্ট্রের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত কৃষ্ণা নদীর জলের ভাগ নিয়ে তিনটি রাজ্যের মধ্যে বিবাদ দীর্ঘদিনের। প্রায় দেড় দশক আগে জলবণ্টন বিবাদ নিরসনের জন্য অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি ব্রিজেশ কুমারের নেতৃত্ব গঠিত হয়েছিল ট্রাইব্যুনাল। যা কর্নাটকের আলমাত্তি বাঁধের উচ্চতা ৫১০ মিটার থেকে বাড়িয়ে ৫২৪ মিটার করার অনুমতি দিয়েছিল। এই অনুমতি নিয়ে গোড়া থেকেই আপত্তি ছিল অন্ধ্রপ্রদেশের।

মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রী জগন্মোহনের নেতৃত্বে অন্ধ্রের মন্ত্রী ও উচ্চপদস্থ সরকারি আধিকারিকদের বৈঠকে স্থির হয়েছে, বর্তমান জলবণ্টন নীতি পুনর্মূল্যায়নের দাবিতে শীর্ষ আদালতে আবেদন জানানো হবে। আলমাত্তি বাঁধের উচ্চতা বৃদ্ধির পরে শুখা মরসুমে অন্ধ্রপ্রদেশে প্রয়োজনীয় জল পাচ্ছে না বলেও অভিযোগ জগন্মোহন সরকারের। প্রসঙ্গত, কাবেরী নদীর জলবণ্টনের ক্ষেত্রেও অতীতে কর্নাটকের বিরুদ্ধে বাড়তি জল টেনে নেওয়ার অভিযোগ তুলেছিল তামিলনাড়ু। পরে শীর্ষ আদালত গঠিত ট্রাইব্যুনাল বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE