Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২
National News

ঠিকুজি-কুষ্ঠি বের করে ফেলেছি, ৪ দিনের মধ্যে টের পাবেন পুলিশ কর্মীরা, হুঁশিয়ারি মনোজের

আপ-এর কর্মীরা তাঁকে মঞ্চে উঠতে বাধা দেওয়ায় শুরু হয় বাক বিতণ্ডা। এক আপ কর্মী মনোজকে ধাক্কা মারেন বলেও অভিযোগ। একটি সংবাদ মাধ্যমেও ওই সময়ের ভিডিয়ো আপলোড করা হয়।

পুলিশ কর্মীদের সঙ্গে বাদানুবাদে জড়ালেন মনোজ তিওয়ারি। ছবি: পিটিআই

পুলিশ কর্মীদের সঙ্গে বাদানুবাদে জড়ালেন মনোজ তিওয়ারি। ছবি: পিটিআই

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৫ নভেম্বর ২০১৮ ১৫:৪৬
Share: Save:

সিগনেচার ব্রিজের উদ্বোধন নিয়ে দিল্লিতে বিজেপি-আপ সংঘাত চরমে। উদ্বোধনে আমন্ত্রণ না জানানোয় ক্ষোভ ছিলই। তবু অনুষ্ঠানে পৌঁছে যাওয়ায় তাঁকে ধাক্কাধাক্কি করা নিয়ে চরম ক্ষুব্ধ দিল্লির বিজেপি সাংসদ মনোজ তিওয়ারি। যে পুলিশ কর্মীরা তাঁকে বাধা দিয়েছিলেন, চার দিনের মধ্যে তাঁদের দেখে নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিলেন দিল্লির বিজেপি প্রধান মনোজ। রাজ্য সরকারের অনুষ্ঠানে বিনা আমন্ত্রণে সাংসদ গিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পাল্টা অভিযোগ তুলে পাল্টা সরব আম আদমি পার্টিও।

Advertisement

রবিবার বিকেলে সিগনেচার ব্রিজের উদ্বোধন করেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল। ব্রিজের উপরই একটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আপ সরকার। মনোজ তিওয়ারি উত্তর-পূর্ব দিল্লির বিজেপি সাংসদ। তাঁর সংসদীয় এলাকার মধ্যেই এই ব্রিজ তৈরি হয়েছে। অথচ তাঁকে আমন্ত্রণ জানায়নি দিল্লির আপ সরকার। কিন্তু আমন্ত্রণ জানানো না হলেও অনুষ্ঠানের সময় সেখানে পৌঁছে যান মনোজ তিওয়ারি।

তবে ব্রিজে ওঠার মুখে তাঁকে পুলিশ কর্মীরা আটকানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তিনি তা না মেনে অনুষ্ঠান স্থলের কাছে চলে যান। মঞ্চেও ওঠার চেষ্টা করেন বলে অভিযোগ। কিন্তু আপ-এর কর্মীরা তাঁকে মঞ্চে উঠতে বাধা দেওয়ায় শুরু হয় বাক বিতণ্ডা। এক আপ কর্মী মনোজকে ধাক্কা মারেন বলেও অভিযোগ। একটি সংবাদ মাধ্যমেও ওই সময়ের ভিডিয়ো আপলোড করা হয়। তাতেও ধাক্কাধাক্কির ছবি ধরা পড়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার-১ আর পি মিনার সঙ্গেও ধস্তাধস্তি হয় মনোজের।

এই ঘটনার পর থেকেই ক্ষোভে ফুঁসছেন মনোজ। তিনি বলেন, ‘‘পুলিশের একাংশ কেজরীবালের হয়ে কাজ করেছে। ওই পুলিশ অফিসাররাই আমাকে ধাক্কাধাক্কি করেন। মিনা নামের কে একজন এখানকার অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার না-কি আছেন, তাঁর ঠিকুজি কুষ্ঠি বের করে ফেলেছি। চার দিনের মধ্যেই বুঝিয়ে দেব পুলিশ আসলে কী।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: পঞ্জাবে বেতনের সমান টাকা সরকারকে ফেরত দিতে হবে কর্মীদের! কেন জানেন?

মনোজ আরও বলেন, ‘‘আমি ওই এলাকার সাংসদ। দীর্ঘদিন ব্রিজের কাজ আটকে ছিল। আমি নিজে উদ্যোগী হয়ে কাজ শুরু করি। বিনিময়ে শুধু একটু সম্মান চেয়েছিলাম। কিন্তু পুলিশ ও আপের লোকজন মিলে আমাকে হেনস্থা করেছে।’’

উল্টো দিকে অশান্তির জন্য বিজেপিকেই দায়ী করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল। তাঁর বক্তব্য, এটা রাজ্য সরকারের অনুষ্ঠান। সাংসদই সেখানে গিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছেন। উপ রাজ্যপাল অনিল বৈজলকে বিষয়টিতে হস্তক্ষেপের আর্জিও জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘‘কিছু দুষ্কৃতীর হাতে পুরো অনুষ্ঠানের দায়িত্ব তুলে দিয়েছিল দিল্লি পুলিশ।’’

আরও পড়ুন: আমাদের থেকে উন্নয়ন প্রকল্পের দান নিয়ে মূর্তি বানাচ্ছ? ফুঁসছে ব্রিটেন

দিল্লির উপ মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া আরও এক ধাপ এগিয়ে বলেছেন, সচেতন ভাবে ইচ্ছে করেই মনোজ তিওয়ারিকে আমন্ত্রণ করা হয়নি। তাঁর বক্তব্য, ‘‘আমরা ইচ্ছে করেই আপনাকে বাদ দিয়েছি, কারণ আপনার সরকার একটি নির্বাচিত রাজ্য সরকারের মুখ্যমন্ত্রীকে স্কাইওয়াক উদ্বোধনে আমন্ত্রণ জানায়নি। অথচ ওই স্কাইওয়াক তৈরি করেছে রাজ্য সরকার।’’

গত মাসেই মধ্য দিল্লিতে শহরের প্রথম স্কাইওয়াকের উদ্বোধনে আমন্ত্রণ জানায়নি কেন্দ্রের নগরোন্নয়ন ও আবাসন মন্ত্রক। তা নিয়েও বিতর্ক তৈরি হয়। সেই ঘটনাই এ দিন স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন সিসোদিয়া।

৬৭৫ মিটার লম্বা, ৬৫ মিটার চওড়া এবং ১৬৫ ফুট উচু ক্যান্টিলিভার কেবল কানেকটেড এই সিগনেচার ব্রিজ রাজধানী দিল্লির সড়ক যোগাযোগ আরও মসৃণ করবে। কিন্তু আপ-বিজেপির এই রাজনৈতিক তরজায় সেই গর্ব অনেকটাই ম্লান।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.