Advertisement
১৫ জুলাই ২০২৪
NCW

Two Finger test: টু ফিঙ্গার টেস্ট অবৈধ! ধর্ষিতাকে আবার কেন নির্যাতন! পরীক্ষা নিয়ে প্রশ্ন তুলল মহিলা কমিশন

২০১৩ সালে সুপ্রিম কোর্ট টু ফিঙ্গার টেস্টকে অবৈধ ঘোষণা করে। পরের বছর ভারতীয় মেডিক্যাল কাউন্সিল জানিয়েছিল ওই পরীক্ষা অবৈজ্ঞানিক।

নির্যাতিতা জানিয়েছেন, সেনাবাহিনীর চিকিৎসক যখন তাঁকে ওই পরীক্ষা দিতে বলেন, তখন পরীক্ষাটি নিষিদ্ধ বলে জানতেন না তিনি।

নির্যাতিতা জানিয়েছেন, সেনাবাহিনীর চিকিৎসক যখন তাঁকে ওই পরীক্ষা দিতে বলেন, তখন পরীক্ষাটি নিষিদ্ধ বলে জানতেন না তিনি। গ্রাফিক— শৌভিক দেবনাথ

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৯:২৫
Share: Save:

ধর্ষণের পরীক্ষা হিসেবে টু ফিঙ্গার টেস্টকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল আট বছর আগে। ২০১২ সালে দিল্লিতে নির্ভয়া-কাণ্ডের পরের বছরই সুপ্রিম কোর্ট টু ফিঙ্গার টেস্টকে মহিলাদের জন্য মর্যাদাহানিকর বলে মন্তব্য করে। তারপরও দেশের সেনাবাহিনীতে একজন সেনা চিকিৎসক নির্যাতিতা সেনাকর্মীর উপর সেই পরীক্ষা করেন কী করে! প্রশ্ন তুলল জাতীয় মহিলা কমিশন।

কোয়ম্বত্তূরে ভারতীয় বায়ুসেনার কলেজে এক মহিলা সেনাকর্মীকে ধর্ষণের খবর কয়েক দিন আগেই প্রকাশ্যে এসেছিল। বৃহস্পতিবার ওই মহিলা সেনাকর্মী অভিযোগ করেন, ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণ করার জন্য তাঁকে বিতর্কিত এবং নিষিদ্ধ ‘টু ফিঙ্গার টেস্ট’ দিতে বলা হয়েছিল। নির্যাতিতা জানিয়েছেন, সেনাবাহিনীর চিকিৎসক যখন তাঁকে ওই পরীক্ষা দিতে বলেন, তখন পরীক্ষাটি নিষিদ্ধ বলে জানতেন না তিনি। যদিও পরীক্ষাটি করার সময় তাঁর ধর্ষনের মানসিক যন্ত্রণার কথা নতুন করে মনে পড়ে যায়। নির্যাতিতার ওই বয়ানের প্রসঙ্গ তুলেই মহিলা কমিশন জানিয়েছে, যে ভাবে ওই মহিলাকে তাঁর যন্ত্রণাদায়ক অভিজ্ঞতা মনে করানো হয়েছে তা নিন্দনীয়।

জাতীয় মহিলা কমিশনের ওই  বিবৃতি।

জাতীয় মহিলা কমিশনের ওই বিবৃতি।

কমিশন জানিয়েছে, বায়ুসেনা কর্তৃপক্ষের এই কাজে তারা হতাশ এবং তারা ঘটনাটির নিন্দা করছে। যে ভাবে সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া নির্দেশ অমান্য করা হয়েছে, তা দেশের বায়ুসেনা কর্তৃপক্ষের কাছে কাম্য নয়। এ ব্যাপারে বায়ু সেনাবাহিনীর এয়ার চিফ মার্শালকে জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা চিঠি লিখেছেন বলেও জানানো হয়েছে বিবৃতিটিতে।

প্রসঙ্গত ভারতীয় মেডিক্যাল কাউন্সিল টু ফিঙ্গার টেস্টকে অবৈজ্ঞানিক বলে ঘোষণা করেছিল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE