মানুষের স্বরকে নকল করতে পারার জন্য টিয়া পাখির কদর সারা বিশ্ব জুড়ে। কথা বলার পাশাপাশি তাদের বুদ্ধিমত্তাও কম নয়! কিন্তু টিয়া পাখির এই বুদ্ধিমত্তা ও কথা বলার ক্ষমতা যদি অপরাধ জগতের লোকজন নিজেদের স্বার্থ চরিতার্থ করতে ব্যবহার করে তাহলে? সম্প্রতি এ রকমই একটি ঘটনা ঘটেছে ব্রাজিলের পিয়াউই প্রদেশে। যা দেখে চমকে গিয়েছেন সে দেশের পুলিশ অফিসাররা।

সে দেশের সংবাদপত্রে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুসারে, পিয়াউই প্রদেশের এক কোকেন মাফিয়া নিজের বাড়িতে পুষেছিলেন একটি টিয়া পাখি। জানলাহীন ওই বাড়ির সামনে রাখা থাকত ওই টিয়া পাখিটি। তাঁর বাড়িতে পুলিশ এলেই টিয়া পাখিটি বলত, ‘মামেয় পুলিশিয়া’। অর্থাৎ ‘মামা, পুলিশ।’ এ ভাবেই সেই মাফিয়াদের পুলিশ আসার সতর্কবাণী দিয়ে সাবধান করে দিত সে।

সম্প্রতি ওই কোকেন মাফিয়ার বাড়িতে অভিযানে গিয়েছিল সে দেশের পুলিশ। এ দিনও পূর্বের মতোই ‘মামেয় পুলিশিয়া’ বলে চিৎকার শুরু করে টিয়াটি। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। অভিযান চালিয়ে পুলিশ ওই বাড়িতে থেকে এক ব্যক্তি ও এক তরুণীকে গ্রেফতার করেছে। সঙ্গে আটক করা হয়েছে টিয়া পাখিটিকেও। 

আরও পড়ুন: খোশমেজাজে স্মার্টফোনে ভিডিয়োর পর ভিডিয়ো দেখছে শিম্পাঞ্জি

ব্রাজিলের এক উচ্চপদস্থ পুলিশ আধিকারিক বলেছেন, ‘আমরা ওই বাড়িতে অভিযানে যেতেই চিৎকার শুরু করে টিয়াটি।’ টিয়াটিকে এই কাজের জন্য ট্রেনিং দেওয়া হয়েছিলও বলেও জানিয়েছেন তিনি। তবে ধরা পড়ার পর থানায় এসে একটি কথাও বলেনি টিয়াটি। সারাক্ষণই সে চুপ করে থাকছে বলে জানিয়েছে ওই পুলিশ আধিকারিক। টিয়াটিকে আপাতত একটি স্থানীয় চিড়িয়াখানায় রাখা হয়েছে। সেখানে তাঁকে ওড়ানো শেখানো হচ্ছে।  

আরও পড়ুন: নাক দিয়ে জল খেয়ে চোখ দিয়ে বের করছেন ইনি