• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এক কমলের কু-কথা, সুবিধা কমল-দলের 

Kamalnath
ছবি: পিটিআই।

মধ্যপ্রদেশে আসন্ন বিধানসভা উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে চলছে রাজনৈতিক বাগবিতণ্ডা। তারই মধ্যে বিতর্কিত মন্তব্য করে কোণঠাসা কংগ্রেস নেতা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ। রাজনৈতিক সূত্রের মতে, তিনি এই গুরুত্বপূর্ণ ভোটের আগে কংগ্রেসকে বিপুল অস্বস্তিতে ফেললেন। বিজেপি প্রার্থী ইমরতি দেবী সম্পর্কে একটি জনসভায় অশালীন মন্তব্য করার অভিযোগে বিজেপি নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দায়ের করেছে।  

মধ্যপ্রদেশের বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান কংগ্রেস নেত্রী সনিয়া গাঁধীকে চিঠি লিখে আবেদন জানিয়েছেন, অবিলম্বে দলের সমস্ত পদ থেকে কমলনাথকে সরিয়ে দেওয়া হোক। তা না হলে ধরে নেওয়া হবে সনিয়া কমলনাথকে সমর্থন করছেন।   

সূত্রের মতে, দলের ভিতরে ও বাইরে তোপের মুখে পড়ে আজ ঢোঁক গিলতে বাধ্য হয়েছেন কমলনাথ। তিনি আজ বলেছেন, “আমি কিছু বলেছিলাম, কিন্তু তা কাউকে অপমান করতে নয়। আমি ওঁর নামটা মনে করতে পারছিলাম না। হাতে তালিকা দেখে আমি বলেছি আইটেম নম্বর ওয়ান, টু। এটা কি কাউকে অপমান করা হল!”

আরও পড়ুন: মোদীর ‘সাহসী’ দাবি, বাস্তব দেখালেন কৌশিক

তবে রাজ্যের রাজনৈতিক সূত্রের মতে, তির এবং মুখের কথা এক বার বেরিয়ে গেলে তা ফেরানো শক্ত। মধ্যপ্রদেশের মহিলা ও শিশু বিকাশের প্রাক্তন মন্ত্রী ইমরতি দেবী মধ্যপ্রদেশের কমলনাথের নেতৃত্বাধীন সরকার থেকে পদত্যাগ করা ২২ বিধায়কদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন। পরবর্তীকালে তিনি বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন এবং এখন তফসিলি প্রার্থীদের জন্য সংরক্ষিত আসন ডাবরায় উপনির্বাচনের দলীয় প্রার্থী তিনি।

আরও পড়ুন: ত্রাতা আদালত, অতিমারির মহাবিপর্যয় থেকে রেহাই কলকাতা ও বাংলার

কংগ্রেস প্রার্থী সুরেশ রাজের সমর্থনে ডাবরায় গতকাল এক সমাবেশে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ বলেন, “রাজে একজন সরল মানুষ যিনি এ রাজ্যে উন্নয়নের কাজ করবেন। ওই মহিলার (ইমরতি দেবী)-র মতো নন। ওঁর নাম যেন কী?” উপস্থিত জনতা যখন ইমরতি দেবীর নাম বলে, তখন কমলনাথ বলেন, “ওঁকে আমার থেকে আপনারা অনেক ভাল চেনেন। আমাকে আগেই সতর্ক করা উচিত ছিল। কী আইটেম ইনি!”

বিজেপির নির্বাচন কমিশনে করা অভিযোগে বলা হয়েছে, কমলনাথের মন্তব্য একজন মহিলা নেতার প্রতি চূড়ান্ত অপমান। আজ একের পর এক টুইট করে কমলনাথ তথা কংগ্রেসের নিন্দায় সরব হয়েছেন বিএসপি নেত্রী মায়াবতী। তিনি ভোটদাতাদের কাছে আবেদন করেছেন, ‘মহিলা এবং দলিত বিরোধী’ কংগ্রেসেকে একটিও ভোট না দিতে।  পাশাপাশি বিজেপি-র পক্ষ থেকে বলা হয়, কমলনাথের মন্তব্য মহিলাদের পাশাপাশি দলিত সম্প্রদায়েরও অপমান। শিবরাজ, ইমরতি দেবী সম্পর্কে কমলনাথের মন্তব্যকে মধ্যপ্রদেশের মেয়ে এবং বোনের অপমান বলে অভিহিত করেছেন। তিনি এবং বিজেপি নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথের মন্তব্যের বিরুদ্ধে “নীরব প্রতিবাদ” করেন। শিবরাজ ভোপালে দু’ঘণ্টা বিক্ষোভ  দেখানোর সময়েই, জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া এবং দলের সদস্যরা ইনদওরে প্রতিবাদ জানান।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন