রমজান মাসে শান্তি বজায় রাখতে জম্মু ও কাশ্মীর উপত্যকায় কোনও রকম বড়সড় অভিযান চালানো হবে না। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতির অনুরোধ মেনে এমনটাই ঘোষণা করল কেন্দ্র। বুধবার এই মর্মে একটি বিবৃতিও প্রকাশ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। যদিও গোটাটাই নির্ভর করছে উপত্যকার পরিস্থিতির উপরে। এ বিষয়ে কেন্দ্র জানিয়েছে, উপত্যকায় কোনও রকম জঙ্গি হামলা হলে তা ঠেকাতে অবশ্যই তৎপর হবে নিরাপত্তারক্ষীরা।

এ বিষয়ে এ দিন একাধিক টুইট করে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। কোনও টুইটে বলা হয়েছে, “রমজান মাসে সমস্ত রকমের অভিযান থেকে বিরত থাকতে নিরাপত্তারক্ষীদের অনুরোধ করা হচ্ছে। মুসলিম সম্প্রদায়ের শান্তিপ্রিয় মানুষজন উপত্যকায় যাতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে রমজান পালন করতে পারেন, সে জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” পাশাপাশি, টুইট করে এ-ও জানানো হয়েছে, “নিরীহ মানুষজনকে রক্ষা করতে বা কোনও রকমের হামলা প্রতিরোধ করতে তার উপযুক্ত জবাব দিতেও প্রস্তুত থাকবেন নিরাপত্তারক্ষীরা। সরকারের আশা, মুসলিম ভাই-বোনেদের নির্বিঘ্নে রমজান পালনে সাহায্য করতে কেন্দ্রের এই উদ্যোগে সমস্ত শান্তিপ্রিয় মানুষই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবেন।”

গত সপ্তাহেই এ নিয়ে নরেন্দ্র মোদী সরকারকে অনুরোধ জানান মেহবুবা মুফতি। বুধবার থেকেই শুরু হচ্ছে রমজান মাস। তা শেষ হবে আগামী ১৪ জুন। এই এক মাসে উপত্যকায় যাতে সমস্ত রকমের অভিযান বন্ধ থাকে তার অনুরোধ করা হয়। রমজান মাসের পাশাপাশি অমরনাথ যাত্রার কথাও মাথায় রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে রাজ্য প্রশাসন।

আরও পড়ুন: বিধায়ক ‘নিখোঁজ’, ১০০ কোটির টোপ, মন্ত্রিত্বের প্রলোভন... জমাট নাটক কর্নাটকে

আরও পড়ুন: সকালেই পৌঁছে গিয়েছিল রাজ্যপালের রিপোর্ট, তার পরেই হিংসা নিয়ে চড়া স্বর প্রধানমন্ত্রীর

কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তে সন্তুষ্ট জম্মু ও কাশ্মীর সরকার। একটি টুইট করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি।