• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘আদালত শুনলই না’, ‘খুব শুনেছি!’

SC
করোনা সংক্রমণ এড়াতেই শীর্ষ আদালতে ভিডিয়ো কনফারেন্সে শুনানি শুরু হয়েছে।

লকডাউন। তাই ভিডিয়ো কনফারেন্সেই চলছে সুপ্রিম কোর্টের শুনানি। বিচারপতিরা হয় এজলাসে, না হয় নিজের বাড়িতে। আর আইনজীবীরা নিজেদের বাড়িতে। কিন্তু কখন মাইক্রোফোন চালু হচ্ছে, কখন বন্ধ হচ্ছে, খেয়াল থাকছে না। যে কথা বলা-শোনা উচিত নয়, তা বলাও হচ্ছে, শোনাও হয়ে যাচ্ছে। কেউ না শোনার ভান করছেন। কেউ ভান করতে পারছেন না। তাতেই বিড়ম্বনা।

মঙ্গলবার দুপুরবেলায় যেমন হল বিচারপতি অরুণ মিশ্রের সামনে। এক মহিলা আইনজীবী তাঁর বাড়ি থেকে ভিডিয়ো কনফারেন্সে সওয়াল করছিলেন। তাঁর মক্কেলের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ। বিচারপতি মিশ্র প্রথমে নির্দেশ দিলেন, ‘ম্যাডাম, আপনার মাইক্রোফোন অন করুন’। আইনজীবী তাঁর মক্কেলের জন্য সুরাহা চেয়ে সওয়াল করলেন। কিন্তু বিচারপতি মিশ্র এক কথায় খারিজ করে দিয়ে বলেন, ‘আপনার মক্কেলের বিরুদ্ধে ছদ্মবেশ ধারণের অভিযোগ আছে। আবেদন ডিসমিসড।’

বিফল হয়ে ততক্ষণে আইনজীবী ভুলে গিয়েছেন যে, মাইক্রোফোন চালু রয়েছে। তিনি মক্কেলকে সান্ত্বনা দিতে দিতে বললেন, ‘সময় ভাল যাচ্ছে না। আদালত মানল না। ওঁরা শুনতেই চান না।’ সবটাই শুনতে পেলেন বিচারপতি অরুণ মিশ্র। তার পর বললেন, ‘ম্যাডাম, এমন মোটেই নয়। আমরা শুনি।’ আইনজীবীর ততক্ষণে জিভ কেটে ‘ধরণী দ্বিধা হও’ অবস্থা!

আরও পড়ুন২৫০ কোটির ব্যবসাও এখন মাঝারি শিল্প হল

আরও পড়ুনশ্বাস নিতে পারছি না আমরাও, এই নতুন আমেরিকাকে চিনি না

করোনা সংক্রমণ এড়াতেই শীর্ষ আদালতে ভিডিয়ো কনফারেন্সে শুনানি শুরু হয়েছিল। কিন্তু তাতে অনেকেই এখনও সড়গড় হয়ে উঠতে পারেননি। আজই সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট-অন-রেকর্ড অ্যাসোসিয়েশন প্রধান বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবডে ও অন্য বিচারপতিদের কাছে আর্জি জানিয়েছেন, আবার এজলাসে শুনানি শুরু হোক। তাঁদের যুক্তি, ১০০ জনের মধ্যে ৯৫ জন আইনজীবীই এই ‘ভার্চুয়াল আদালত’-এ স্বচ্ছন্দ নন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন