• স‌ংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

টিকা নিয়ে ভয় থাকলে আমিই প্রথম নেব: হর্ষ বর্ধন

Harsh Vardhan
হর্ষ বর্ধন।

কবে মিলবে করনোর প্রতিষেধক, তা নিয়ে টানাপড়েনের মধ্যেই আজ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন বলেছেন, ‘‘ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতিতে কাজ করছেন এবং প্রবীণ এমন ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে সরকার জরুরি ভিত্তিতে সম্ভাব্য কোভিড টিকার ছাড়পত্র দিতে পারে। এবং সে ক্ষেত্রে টিকার সুরক্ষা নিয়ে সন্দেহ থাকলে প্রথম ডোজ়টি আমিই নেব।’’ সোশ্যাল মিডিয়ার একটি প্ল্যাটফর্মে আজ এই কথা জানান হর্ষ বর্ধন।

সিরাম ইনস্টিটিউট গত কাল জানিয়েছিল, ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া (ডিসিজিআই)-র অনুমতি মিললে ভারতে মানবদেহে কোভিশিল্ড প্রতিষেধকের পরীক্ষা শুরু করতে প্রস্তুত তারা। আজ স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বিবৃতি বলেছে, ভ্যাকসিন বাজারে আসার কোনও দিন ঠিক হয়নি। তবে ২০২১ সালের প্রথম তিন মাসের মধ্যে সম্ভবত তা তৈরি হয়ে যাবে এবং যাঁদের এই টিকার প্রথম প্রয়োজন তাঁদেরই প্রথম দেওয়া। টিকার দাম দেওয়ার সামর্থ্য তাঁদের আছে কি না তা বিচার করা হবে না। 

স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, অনেক ক্ষেত্রেই কোভিড রোগীরা সেরে ওঠার পরেও ক্লান্তি, হাত-পায়ে যন্ত্রণা, সর্দি-কাশি, গলা ব্যাথা বা শ্বাসকষ্টের মতো করোনার উপসর্গগুলি সবই থেকে যাচ্ছে। এবং সুস্থ হয়ে ওঠার ক্ষেত্রেও দেখা যাচ্ছে, অন্য কোনও রোগের পূর্ব ইতিহাস রয়েছে এমন রোগীর ক্ষেত্রে সেরে উঠতে সময় অনেক বেশি লাগছে। সুস্থ থাকতে তাই করোনামুক্ত হওয়ার পরেও ব্যায়াম ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এমন ওষুধ খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক।     

দেশে অ্যাক্টিভ রোগী
৯,৭৩,১৭৫
মোট সুস্থ
৩৭,০২,৫৯৫
২৪ ঘণ্টায় সুস্থ 
৭৮,৩৯৯
২৪ ঘণ্টায় মৃত 
১১১৪
সূত্র: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক 

আরও পড়ুন: উমর খালিদ গ্রেফতার, দিল্লি হিংসা মামলায়, দেওয়া হল ইউএপিএ​

আরও পড়ুন: কো-মর্বিডিটিকে গুরুত্ব দিয়েই নয়া প্রোটোকল কেন্দ্রের​

গত কাল আক্রান্ত হয়েছিল ৯৭ হাজারের বেশি। আজ সেখানে গোটা দেশে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা ৯৪ হাজার ৩৭২। সব মিলিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত ৪৭ লক্ষ ৫৪ হাজার ৪৫৬। মৃত ৭৮ হাজার ৫৮৬। আন্তর্জাতিক সমীক্ষক ওয়ার্ল্ডোমিটার্স অনুযায়ী সংক্রমিতের সংখ্যা ৪৭ লক্ষ ৬৪ হাজার ৭৮৬। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, দেশে বর্তমানে করোনায় সুস্থতার হার ৭৭.৮৮ শতাংশ। সুস্থতার হার বাড়লেও মন্ত্রকের পরামর্শ, ‘‘মাস্ক, স্যানিটাইজ়ার  ব্যবহারের মতো স্বাস্থ্যবিধি মানতেই হবে। পরিমাণ মতো গরম জল খেতে হবে।’’ সুস্থ হয়ে ওঠার পরে নিজেদের অভিজ্ঞতা বন্ধুবান্ধব, আত্মীয়দের সঙ্গে ভাগ করে নিতে হবে সোশ্যাল মিডিয়ায়, যাতে করোনা নিয়ে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ও ভুল ধারণা ভেঙে ফেলা যায়। 

গত কালই চালু হয়েছিল মেট্রো পরিষেবা। তার পরে আজই দিল্লিতে দৈনিক সংক্রমণের রেকর্ড ভেঙে গত ২৪ ঘণ্টায় চার হাজার ৭১৫ জন করোনা-আক্রান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে সরকার। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ ১৪ হাজার। ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২৮ জনের। সরকারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ১০ দিন রাজধানীতে করনো সংক্রমণের গ্রাফ ক্রমেই ঊর্ধ্বগামী হয়েছে। এই নিয়ে পরপর চার দিন  আক্রান্তের সংখ্যা চার হাজার ছাড়াল দিল্লিতে। স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, দেশে এখনও পর্যন্ত করোনায় সুস্থ হয়েছে ৩৭ লক্ষ ২ হাজার ৫৯৫ জন।             

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন