• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গিলানি পাসপোর্ট পেলেন ন’মাসের

১

দু’মাস বিতর্কের পরে শেষ পর্যন্ত ন’মাসের জন্য বৈধ পাসপোর্ট দেওয়া হল হুরিয়ত কনফারেন্সের নেতা সৈয়দ আলি শাহ গিলানিকে।

সৌদি আরবের জেড্ডায় অসুস্থ কন্যাকে দেখতে যাওয়ার জন্য পাসপোর্টের আবেদন করেছিলেন বিচ্ছিন্নতাবাদী এই নেতা। কিন্তু পাসপোর্টের আবেদনপত্রে নিজের ‘নাগরিকত্ব’-এর জায়গায় কিছু উল্লেখ করতে চাননি তিনি। শ্রীনগরের পাসপোর্ট অফিসে তিনি জানিয়েছিলেন, ‘‘আমি জন্মসূত্রে ভারতীয় নই। তবু ভারতীয় পাসপোর্ট নিয়ে যাতায়াত করতে আমরা বাধ্য হই।’’ তাঁর এই বিতর্কিত মন্তব্যের পরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহের বক্তব্য, ‘‘আবেদনপত্রের সব জায়গায় ঠিকমতো তথ্য দিয়ে পূরণ করা হলে তবেই গিলানির পাসপোর্ট নিয়ে চিন্তাভাবনা করা হবে। সব ঠিক থাকলে পাসপোর্ট দিতে আমাদের কোনও আপত্তি নেই।’’

যদিও বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে জানানো হয়েছে, পাকপন্থী হুরিয়ত নেতা গিলানিকে পাসপোর্ট দিয়ে পাকিস্তানকেও কিছুটা সদর্থক বার্তা দেওয়া হল বলে মনে করা হচ্ছে। পাকিস্তানের সঙ্গে সীমান্ত সংঘর্ষ সত্ত্বেও পর্দার পিছনের কূটনীতি জারি রাখছে মোদী সরকার। সার্ক শীর্ষ সম্মেলন পর্যন্ত বিদেশনীতির অভিমুখ বদলানো হবে না বলেই বিদেশ মন্ত্রকের দাবি।

জম্মু-কাশ্মীরে রাজ্য বিজেপি প্রাথমিক ভাবে গিলানিকে পাসপোর্ট দেওয়ার বিরোধী ছিল।

রাজ্যনেতারা বলেছিলেন, দেশবিরোধী কার্যকলাপের জন্য গিলানি ক্ষমা না চাইলে তাঁকে পাসপোর্ট দেওয়া উচিত নয়। শেষ পর্যন্ত গত ৫ জুন গিলানি অবশ্য পাসপোর্টে নাগরিকত্বের জায়গায় ভারতীয় লেখেন। তৈরি হয় তাঁর পাসপোর্ট।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন