পশ্চিমবঙ্গের এক তৃণমূল সাংসদের বিরুদ্ধে অবৈধ কয়লা খনন ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগ উঠল লোকসভায়। আজ কয়লা সংক্রান্ত একটি প্রশ্নের আলোচনায় বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ অভিযোগ করেন, ‘‘পশ্চিমবঙ্গে একাধিক অবৈধ কয়লা খনি চালু রয়েছে। যা থেকে প্রতিদিন হাজার ট্রাক কয়লা চুরি হচ্ছে। এর সঙ্গে তৃণমূলের এক সাংসদও
জড়িত রয়েছেন।’’

সৌমিত্র কারও নাম না নিলেও প্রবল হইচই শুরু করে দেন তৃণমূল সাংসদরা। স্পিকার ওম বিড়লা তাঁদের বলেন, ‘‘আপনারা কেন অবৈধ কয়লা খননকে সমর্থন করছেন? আপনাদের দাঁড়ানোর কোনও কারণ নেই। কারণ ওই সাংসদ কারও নাম নেননি।’’ কয়লামন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী নিজের জবাবে বলেন, ‘‘পশ্চিমবঙ্গ থেকে কিছু অভিযোগ জমা পড়েছে। যদি সাংসদ নির্দিষ্ট তথ্য কয়লা মন্ত্রককে জানান, তাহলে মন্ত্রক এ বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গকে নোট পাঠাবে।’’

ওই বিতর্কের আগে দেউচা পাঁচামি কয়লা খনির অধিকার দ্রুত রাজ্যের হাতে তুলে দেওয়ার আশ্বাস ফের দেন কয়লামন্ত্রী। ওই খনির হস্তান্তর কবে হবে, প্রশ্নোত্তর পর্বে জানতে চেয়েছিলেন তৃণমূলের লোকসভার নেতা সুদীপ বন্দোপাধ্যায়। জবাবে জোশী বলেন, ‘‘নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরেও বেশ কিছু প্রক্রিয়াগত ধাপ থাকে। সরকার খুব শীঘ্রই (পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে) চুক্তি করবে।’’