একটু একটু করে সেরে উঠেছে আট বছরের মন্দসৌরের ধর্ষিতা শিশুটি, জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। হাসপাতাল সূত্রের খবর, গত ২৪ ঘণ্টায় অনেকটাই স্বাস্থ্যের উন্নতি হয়েছে তার। শিগগিরই আইসিইউতেও সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হতে পারে তাকে। এই ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তির মাথা কাটলে পুরস্কার দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন এক বিজেপি নেতা।

গত ২৬ জুন, মিষ্টির লোভ দেখিয়ে অপহরণ করে আট বছরের ওই নাবালিকাকে ধর্ষণ করে। এমনকি ধারাল অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে খুনেরও চেষ্টা হয়। সিসিটিভি ফুটেজের ভিত্তিতে বছর কুড়ির ইরফান ও আসিফ নামে দুই যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে অভিযোগ, মধ্যপ্রদেশ পুলিশের কাছে অভিযুক্তদের ধরার সূত্র বলতে শুধু সিসিটিভিতে দেখা একজোড়া নতুন জুতো আর হাতের কব্জিতে একটি কালো সুতো। ফলে এরাই আসল অভিযুক্ত কি না তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

ঘটনায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দোষীদের শাস্তির দাবিতে রবিবার রাস্তায় নামেন হাজার হাজার মন্দসৌরবাসী। সোমবারও চলে বিক্ষোভ।

তবে নির্যাতিতা শিশুটির বাবা-মা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, কোনও ক্ষতিপূরণ নয়, দোষীদের ফাঁসিই চান তাঁরা। আর সোমবার অভিযুক্তদের মাথা কাটার বিনিময়ে ৫ লক্ষ টাকা পুরস্কার মূল্য ঘোষণা করেছেন বিজেপি নেতা সঞ্জীব মিশ্র। তিনি জানান, আদালত যদি দোষীদের শাস্তি দিতে অপারগ হয়, তিনি পাঁচ লক্ষ টাকা তাঁকে পুরস্কার দিতে প্রস্তুত, যে দোষীর মাথা কেটে আসতে পারবে। মন্দসৌরের পুলিশ সুপার রাকেশ মোহন শুক্ল বলেন, বিশেষ তদন্তকারী টিম (সিট) গঠন করা হয়েছে।