ঋণ নিয়ে এ বার পাল্টা আক্রমণের মুখে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শনিবার একটি অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করেছিলেন, ইউপিএ সরকারের আমলে নিয়ম-কানুন না-মেনে ঢালাও ঋণ দেওয়ার ফলে ব্যাঙ্কগুলিকে লোকসানের ধাক্কা সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। সেই সরকারের অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম রবিবার টুইটে মোদীকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বলেছেন— ‘‘এনডিএ আমলে কাদের কাদের বড়সড় ঋণ দেওয়া হয়েছে, এবং সেগুলির কতগুলি অনাদায়ী হয়ে গিয়েছে, মোদী তা একটু বিষদে জানাবেন?’’

শুধু তা-ই নয়, ইউপিএ আমলের অনাদায়ী ঋণ আদায়ে কেন তাঁর সরকার উদ্যোগ নিল না, সেই প্রশ্নও মোদীর উদ্দেশে ছুড়েছেন চিদম্বরম। তেমন বেশ কিছু ঋণের মেয়াদ কেন এই সরকার বাড়িয়ে দিয়েছে, তার কারণও জানতে চেয়েছেন ইউপিএ সরকারের অর্থমন্ত্রী। একের পর এক চারটি টুইটে কংগ্রেস নেতা চিদম্বরম অভিযোগ করেছেন, এনডিএ আমলে ‘নামদার’ (প্রভাবশালী)-দের ফোনের ভিত্তিতে বহু ব্যবসায়ীকে দেদার ঋণ দিয়েছেন ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। সে সব ক্ষেত্রে নিয়ম-নীতির তোয়াক্কাও করা হয়নি। এর পরেই তিনি মোদীকে চ্যালেঞ্জ করে বলেন, ২০১৪-য় ক্ষমতায় আসার পর থেকে কত জনকে বড় মাপের ঋণ দেওয়া হয়েছে, এবং তার মধ্যে কতগুলি অনাদায়ী হয়ে পড়েছে, তার একটা হিসেব প্রধানমন্ত্রী কি দেবেন? 

চিদম্বরম জানিয়েছেন, এ সব প্রশ্ন সংসদে তোলাটাই যুক্তিসঙ্গত। তা তোলাও যে হয়নি তা নয়। কিন্তু মোদী সরকার সেগুলির কোনও জবাব দেওয়ার প্রয়োজন মনে করেনি।