শুক্রবারই সর্বকালীন রেকর্ড ভেঙে মার্কিন ডলার প্রতি টাকার মূল্য ৭৪ পেরিয়ে গেল। বাজার চলাকালীন এক সময় ডলার প্রতি টাকার মূল্য গিয়ে দাঁড়িয়েছিল ৭৪.২৩ টাকা। এত সস্তা এর আগে কখনও হয়নি টাকা। যদিও বাজার বন্ধের সময় কিছুটা ঘুরে দাঁড়ায়। দিন শেষ হওয়ার সময় ডলার প্রতি টাকার বিনিময় মূল্য ছিল ৭৩.৭৬ টাকা। টাকার মূল্যের হিসেবে এটিও একটি নতুন রেকর্ড।

টাকার এই লাগাতার পতনের কারণে বিনিয়োগকারীদের নজর ছিল রিজার্ভ ব্যাঙ্কের দিকে। শুক্রবারই ছিল রিজার্ভ ব্যাঙ্কের আর্থিক নীতি ঘোষণার দিন। যদিও সবাইকে অবাক করে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক জানিয়ে দেয়, টাকার অবস্থা বেশ ভালই। জরুরি কোনও ব্যবস্থা নেওয়ার মতো পরিস্থিতি এখনও আসেনি। সবাইকে অবাক করে রেপো রেট অপরিবর্তিত রাখার কথাও জানিয়ে দেয় আর বি আই। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর উর্জিত প্যাটেল বলেন, ‘‘বিশ্ববাজারের হিসেব ধরলে টাকার পতন মারাত্মক কিছু নয়। যদিও আন্তর্জাতিক বাজারের প্রভাব কাটিয়ে ওঠার মতো ক্ষমতা এখনও ভারতীয় অর্থনীতির নেই।’’

শুধু ২০১৮ সালেই টাকার মূল্যে ১৩.৫ শতাংশ পতন হয়েছে, যা টাকাকে এশিয়ার সমস্ত মুদ্রার মধ্যে সবথেকে খারাপ জায়গায় রেখেছে। যদিও শুক্রবার সবাইকে তাজ্জব করে দেন রেলমন্ত্রী পীযুষ গয়াল। যেদিন সর্বকালীন সস্তা হল টাকা, সেদিনই তিনি মন্তব্য করে বসলেন, ‘‘ টাকা এখন একটা গোল্ডেন রানের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে।’’

আরও পড়ুন: গাঁধী জয়ন্তীর প্রদর্শনীতে জিন্নার ছবি, বিতর্কে আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়

নিজের বক্তব্যের সমর্থনে অবশ্য সংখ্যাতত্ত্বকেই হাতিয়ার করেছেন পীযুষ। তাঁর দাবি, ‘‘গত পাঁচ বছরে টাকার দাম সাত শতাংশ কমেছে। সেই হিসেবে টাকা তার ইতিহাসে সব থেকে ভাল সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে।’’

(ভারতের রাজনীতি, ভারতের অর্থনীতি- সব গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)