• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গুজরাতে ইস্তফা দুই কংগ্রেস বিধায়কের

Congress
প্রতীকী ছবি।

রাজ্যসভা নির্বাচনের ঠিক দু’সপ্তাহ আগে গুজরাত বিধানসভা থেকে ইস্তফা দিলেন কংগ্রেসের দুই বিধায়ক। গত তিন মাসে সাত জন বিধায়ক ইস্তফা দিলেন কংগ্রেস থেকে। ফলে ওই রাজ্যে নির্বাচন হতে যাওয়া চারটি আসনের মধ্যে তিনটিতে জেতা অনেকটাই নিশ্চিত করে ফেলল বিজেপি।

১৯ জুন দেশের ২৪টি রাজ্যসভা আসনে ভোট হওয়ার কথা। এর মধ্যে চারটি করে আসন অন্ধ্রপ্রদেশ, গুজরাত ও কর্নাটক থেকে, তিনটি করে আসন রাজস্থান ও মধ্যপ্রদেশ, দুটি আসন ঝাড়খণ্ড ও একটি করে আসনে ভোট হবে মণিপুর, মেঘালয় ও অরুণাচল প্রদেশ ও মিজোরামে। গুজরাত নির্বাচনে চারটি আসনে কংগ্রেস দু’টি ও বিজেপি তিন জন প্রার্থীকে দাঁড় করানোর সিদ্ধান্ত নেয়।

আজ গুজরাত বিধানসভা থেকে ইস্তফা দেন কংগ্রেস বিধায়ক জিতু চৌধুরী ও অক্ষয় পটেল। এর ফলে গুজরাত বিধানসভার যা শক্তি দাঁড়াল, তাতে এক জন রাজ্যসভার সাংসদকে জিততে ৩৪টি ভোটের প্রয়োজন। বর্তমানে বিজেপির ওই রাজ্যে বিধায়কসংখ্যা ১০৩। ফলে সে দিক থেকে গুজরাতের চারটি আসনের তিনটিতে বিজেপির জয় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে। শুরুতেই যখন বিজেপি তৃতীয় প্রার্থীকে নির্বাচনে দাঁড় করিয়েছিল, তখন দল ভাঙার আশঙ্কা করেছিলেন রাজ্য কংগ্রেস নেতৃত্ব। আজ সেই আশঙ্কাকে সত্যি করে দুই বিধায়ক ইস্তফা দেন। বিধায়কদের ইস্তফা গৃহীত হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্পিকার রাজেন্দ্র ত্রিবেদী।  মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানে দু’দলের একটি করে আসন জেতা নিশ্চিত। কিন্তু দুই দলই দু’জন করে প্রার্থী দিয়েছে। ফলে ওই দুই রাজ্যেও গুজরাতের ধাঁচে শেষ মুহূর্তে দলে ভাঙন ও দ্বিতীয় পছন্দের ভোটের ভিত্তিতে শিকে ছিঁড়বে কোনও এক দলের প্রার্থীর। দুই রাজ্যেই নির্দল বিধায়কদের অর্থের বিনিময়ে কাছে টানতে সক্রিয় বিজেপি শিবির, অভিযোগ করেছে কংগ্রেস।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন