Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

বিগ পোরস? চিন্তা নেই আর

মুখের রোমকূপ বড় হলে সমস্যায় জেরবার হতে হয়। ঘরোয়া উপায়ে করে ফেলুন সমাধান মুখের রোমকূপ বড় হলে সমস্যায় জেরবার হতে হয়। ঘরোয়া উপায়ে করে ফেলুন

ঊর্মি নাথ
০৩ মার্চ ২০১৮ ০০:২৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
মডেল: রিয়া বণিক, ছবি: অমিত দাস

মডেল: রিয়া বণিক, ছবি: অমিত দাস

Popup Close

শীতের মরসুম শেষ। উষ্ণতার পারদ চড়তে শুরু করেছে। পাশাপাশি অতিরিক্ত দূষণ। দূষণ ও গরমের আক্রমণে ঘামে তেলে ত্বকের হাজারো সমস্যা শুরু হল বলে। বিশেষ করে, যাঁদের মুখে রোমকূপ বা পোরস বড় তাঁদের সমস্যা গুরুতর। হরমোনের সমস্যা থাকলে, অতিরিক্ত ধূমপান করলে বা বংশগত কারণেও রোমকূপ বড় হয়। এর ফলে ত্বক সারাক্ষণ তৈলাক্ত থাকে। কাজেই ধুলো ময়লা ব্যাকটিরিয়া জমে ব্রণ ও বিভিন্ন ধরনের সমস্যা তৈরি হয়। ত্বকের টানটান ভাব একেবারে নষ্ট হয়ে যায়। এতে বয়সের ছাপ পড়ে তাড়াতাড়ি। রোমকূপ সংক্রান্ত সমস্যার সঙ্গে মোকাবিলা করার জন্য চিকিৎসা আছে। যা বেশ ব্যয়বহুল। বিভিন্ন কোম্পানির ফেস স্ক্রাব ও ফেসপ্যাক আছে, যা ব্যবহার করলেও এই সমস্যাকে আয়ত্তের মধ্যে রাখা যায়। কিন্তু এ সবের মধ্যে যেতে না চাইলে, অনায়াসে অনুসরণ করতে পারেন কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি।

ঘরোয়া উপায়ে স্ক্রাবিং‌

Advertisement

•ক্লেনজিং জেল দিয়ে মুখ-ঘাড় পরিষ্কার করে নিন। দেখে নেবেন, ক্লেনজিং জেলে যেন অ্যাসিড বা অ্যালকোহল না থাকে। এগুলো ত্বকের পক্ষে ক্ষতিকারক। এর পর ১০ থেকে ১৫ মিনিট মুখে স্টিম নিন। এতে রোমকূপের মুখ খুলে যায় এবং নোংরা বেরিয়ে গিয়ে ত্বক পরিষ্কার হয়। স্টিম নেওয়ার সময় গরম জলের মধ্যে রোজমেরি বা ল্যাভেন্ডার অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন। যা আপনাকে আরও সতেজ করবে।

•মাইল্ড ফেস স্ক্রাবের বদলে চিনি ও দুধ মিশিয়ে বা দুধের মধ্যে আটা বা বেসন মিশিয়ে মুখে হাল্কা করে দুই থেকে তিন মিনিট ঘষে নেওয়ার পর ধুয়ে ফেলুন। মুখে রোম বেশি থাকলে আটার বদলে বেসন ব্যবহার করতে পারেন। এর পর গোলাপজল বা টোনার লাগাতে পারেন। ত্বক অতিরিক্ত তৈলাক্ত হলে এবং ঘরের বাইরে বেশি সময় থাকতে হলে সপ্তাহে অন্তত দু’বার স্ক্রাবিং করুন।



ঘরোয়া উপায়ে ফেসপ্যাক

• সপ্তাহে দু’বার ফেসপ্যাক ব্যবহার করলে রোমকূপের সমস্যা থেকে রেহাই পেতে পারেন সহজে।

• ফেসপ্যাক হিসেবে সবচেয়ে উপকারী টক দই। আরও ভাল হয় যদি সেই দই বাড়িতে পাতা হয়। মুখে লাগানোর আগে দই আধঘণ্টা ফ্রিজে রাখুন। কুড়ি মিনিট পর হাল্কা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

•ওটসের সঙ্গে আটা, লেবুর রস ও গোলাপজল মিশ্রিত প্যাক লাগাতে পারেন। শুকিয়ে গেলে গোলাপজল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

•দুটো ডিমের সাদা অংশের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে মুখে লাগানোর ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ডিমের গন্ধ সহ্য করতে না পারলে, ডিমের বদলে লেবুর রসের সঙ্গে মধু বা চিনি মিশিয়ে প্যাকের মতো ব্যবহার করতে পারেন। ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে প্যাক তুলে ফেলুন। এতে ত্বক টানটান থাকে ও মৃত কোষও পরিষ্কার হয়ে যায়।

• কাঠবাদাম রোমকূপ ছোট রাখতে সাহায্য করে। চার-পাঁচটা কাঠবাদাম বেটে, তার সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন। ২০-২৫ মিনিট পর ঠান্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। পেঁপে চটকে পেস্ট করে মুখে-ঘাড়ে লাগালে তৈলাক্ত ভাব কমে এবং ত্বক বেশ টানটান থাকে।

•টোনার বা গোলাপজল রোমকূপের মুখ বন্ধ রাখতে সাহায্য করে। এগুলির বদলে অবশ্য ব্যবহার করতে পারেন শসা কিংবা টম্যাটোর রস।



মেকআপের আগে ও পরে

যাঁদের রোমকূপ বড়, তাঁরা মেকআপ করার আগে এবং পরে কতকগুলো কথা মাথায় রাখুন...

•অবশ্যই ভাল কোম্পানির প্রসাধন ব্যবহার করবেন।

•মেকআপ করার আগে ও তোলার পরে মুখে অন্তত তিন থেকে চার মিনিট বরফ ঘষে নিন।

•লিকুইড ফাউন্ডেশনের চেয়ে ক্রিমবেসড ফাউন্ডেশন ব্যবহার করে, তার উপর হাল্কা করে ফেস পাউডার লাগিয়ে নিন।

• রোমকূপ বড় হলে স্ক্রাবিংয়ের পর বা প্রতিদিন স্নানের পর হাল্কা ময়শ্চারাইজার বা ক্যালামাইন জাতীয় লোশন ব্যবহার করতে পারেন। মেকআপের বেস হিসেবেও এগুলো ব্যবহার করতে পারেন। অয়েলি প্রডাক্ট এড়িয়ে চলুন। এ কথা ডায়েটের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement