Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied

চিত্র সংবাদ

Wedding Add: পাত্রীর অন্তর্বাসের মাপ থেকে কুমারীত্ব যাচাই, বিয়ের বিজ্ঞাপনে বিচিত্র চাহিদা!

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৩ নভেম্বর ২০২১ ১১:০৬
বিয়ের জন্য দেওয়া বিজ্ঞাপনে বিচিত্র চাহিদা প্রায়শই দৃষ্টি আকর্ষণ করে। কখনও সুন্দরী, ফর্সা কনের খোঁজ, তো কখনও মোটা মাইনের পাত্রের আবদার। কিন্তু এ সব কিছুকেই ছাপিয়ে গিয়েছে সম্প্রতি প্রকাশ্যে আসা একটি বিয়ের বিজ্ঞাপন। সেখানে হবু কনের জন্য অন্তর্বাসের পরিমাপ এবং কোমরের মাপও উল্লেখ করে দিয়েছেন এক ব্যক্তি! যা দেখে চোখ কপালে অনেকের! ঝড়ের বেগে ভাইরাল হয়েছে সে ছবি। তবে এই প্রথম নয়, এমন অদ্ভুত চাহিদা নিয়ে বিয়ের বিজ্ঞাপন আগেও প্রকাশ্যে এসেছে।

হলুদ রঙের উপর কালো ইংরাজি হরফে বড় করে লেখা ‘ইনোসেন্ট ডিভোর্সি’। পাত্রীর খোঁজে এই বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন এক ব্যক্তি। ব্যক্তির বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে এবং তিনি নিজেকে নিরীহ বলে উল্লেখ করেছেন। এর অর্থ কী? এমন বিজ্ঞাপন প্রকাশ্যে আসার পর তার অর্থের খোঁজে হন্যে হয়ে উঠেছিল নেটদুনিয়া। নানা মত উঠে এসেছিল।
Advertisement
নারীবাদী মহিলাদের আবার এই ব্যক্তির একেবারেই পছন্দ নয়। তাই তো নিজের বিয়ের বিজ্ঞাপনে বিষয়টি উল্লেখ করতে ভোলেননি। মহীশূরের এই ব্যবসায়ী ২৬ বছরের মধ্যে পাত্রী খুঁজছিলেন। সুন্দরী, উচ্চাকাঙ্ক্ষী, ভাল রাঁধুনি পাত্রী চাই তাঁর। তবে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ শর্ত রয়েছে। পাত্রী নারীবাদী হলে একেবারেই চলবে না!

‘আমি ধনী এবং অত্যন্ত জনপ্রিয়। আমার একটি ছেলে এবং স্ত্রী রয়েছে। সুন্দরী, ভাল উচ্চতার পাত্রী চাই। যার বয়স হতে হবে ২০ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে। মাধ্যমিক পর্যন্ত পড়াশোনা করলেই হবে তবে তাঁকে অতি অবশ্যই কুমারী হতে হবে।’ ঠিক এই কথাগুলিই বিজ্ঞাপনে উল্লেখ করেছেন এই ব্যক্তি। নিজে এক সন্তানের বাবা, সঙ্গে স্ত্রীও রয়েছে। দ্বিতীয় বিয়ে করতে কুমারী পাত্রী খুঁজছেন!
Advertisement
তিন ছেলেরই বিয়ে দিতে চান। আলাদা করে বিজ্ঞাপন দিলে খরচও গুনতে হবে বেশি। তাই একসঙ্গেই পাত্রী চেয়ে তিন ছেলের বিয়ের বিজ্ঞাপন দেখেছেন কখনও? না দেখে থাকলে পাশের ছবিটি দেখে নিন।

হাসিখুশি তামিল পাত্রী চাই। পাত্র এমবিএ। বয়স ৩২ বছর। নিজের বাড়ি, ব্যবসা। তবে পাত্রীর যেন ফেসবুকে আসক্তি না থাকে তার জন্য কড়া শর্ত বেঁধে দিয়েছেন। পাত্রীর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থাকা চলবে না!

আইএএস, আইপিএস, চিকিৎসক, ব্যবসায়ী, শিল্পপতি— সমস্ত রকমের পাত্রই চলবে। চলবে না শুধু সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার!

এই পাত্রী আবার আমিষ খাবার পছন্দ করেন। পাছে এমন কোনও পরিবারের বউ হয়ে গেলেন, যেখানে রাত দিন শুধু নিরামিষ রান্না হয়, তাই আগেই নিজের বিয়ের বিজ্ঞাপনে জানিয়ে দিয়েছেন যে তিনি কিন্তু নিরামিষাশী নন।

একটি বিশেষ পত্রিকার নামোল্লেখ করে ‘পাত্র চাই’-এ বিজ্ঞাপন দিয়েছেন কোনও পাত্রী। তাঁর নাকি এমন পাত্র চাই, যিনি ওই বিশেষ পত্রিকাই শুধু পড়েন। তাঁর মতে, ওই পত্রিকা একমাত্র সঠিক সংবাদ পরিবেশন করে থাকে।

শিক্ষিত গুজরাতি পরিবার। আমেরিকাবাসী মেয়ের জন্য পাত্রের খোঁজ করছেন। কাগজে দেওয়া বিজ্ঞাপনে জানিয়ে রেখেছে, এইচওয়ান-বি ভিসায় কোনও আপত্তি নেই। বিষয়টি একটু গোলমালে লাগছে বৈকি।

তবে সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া পাত্রীর অন্তর্বাস এবং কোমরের পরিমাপ জানিয়ে বিজ্ঞাপনটি বোধ হয় সব কিছুই ছাপিয়ে গিয়েছে।