• ইন্দ্রজিৎ সেনগুপ্ত
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ওয়ান ডে দলে প্রত্যাবর্তনের স্বপ্ন রাহানের

Rahane
আশা: ওয়ান ডে দলে ফিরে চারে ব্যাট করতে চান অজিঙ্ক। এএফপি

ভারতীয় টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক হলেও ওয়ান ডে দলে জায়গা করতে পারছেন না অজিঙ্ক রাহানে। অথচ এক সময় ভারতের হয়ে ওয়ান ডে-তে ওপেন করা থেকে শুরু করে চার নম্বরেও ব্যাট করেছেন তিনি। কিন্তু ২০১৯ বিশ্বকাপ দলে জায়গা হয়নি তাঁর। শেষ ওয়ান ডে খেলেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ২০১৮ সালে।

ভারতের টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক যদিও আত্মবিশ্বাসী, টেস্টে ধারাবাহিক পারফর্ম করতে পারলে ওয়ান ডে দলের দরজাও খুলে যাবে তাঁর জন্য।

মঙ্গলবার ইনদওরে সাংবাদিক বৈঠকে এসে রাহানে বলেন, ‘‘টেস্ট ম্যাচগুলোয় ধারাবাহিক পারফর্ম করাই আমার লক্ষ্য। প্রত্যেক ম্যাচে রান পেতে শুরু করলে আশা করি, ওয়ান ডে দলেও ফের সুযোগ আসবে। নিজের উপরে আস্থা ও আত্মবিশ্বাস না থাকলে যা একেবারেই সম্ভব নয়।’’ তিনি যোগ করেন, ‘‘বরাবরই বর্তমানে বিশ্বাস করি। আমার পারফরম্যান্সে যদি দল উপকৃত হয়, তা হলে অবশ্যই ওয়ান ডে দলে জায়গা ফিরে পাব।’’ 

তিনি কি এখনও ওয়ান ডে দলের চার নম্বরে ব্যাট করার স্বপ্ন দেখেন? রাহানের উত্তর, ‘‘ওয়ান ডে দলে ফিরলে চার নম্বরে ব্যাট করাই লক্ষ্য আমার।’’

ইনদওরে আসার আগে বেঙ্গালুরুর জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে (এনসিএ) রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে টেকনিক নিয়ে কাজ করেছেন রাহানে। তাঁর সঙ্গেই এনসিএ-তে অনুশীলন করেছেন চেতেশ্বর পুজারা, মায়াঙ্ক আগরওয়ালরা। রাহানের মত, রাহুলের সঙ্গে কাজ করে তাঁর মতো বাকিরাও উপকৃত হয়েছেন। তাঁর কথায়, ‘‘রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে কাজ করার উপকার সব সময়েই পেয়েছি। প্রথমত তিনি আমার রোলমডেল। তাই বড় সিরিজের আগে এনসিএ-তে তাঁর সঙ্গে কাজ করতে যাই। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের আগে কাজ করেছি। দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের আগেও এনসিএ-তে প্রস্তুতি নিয়েছি। প্রত্যেক বারই উপকৃত আমি।’’ রাহানে আরও বলেন, ‘‘যখনই সময় পাই, মনে হয় এনসিএ-তে গিয়ে রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে কাজ করে আসি। অতীতেও তাঁর থেকে প্রচুর শিখেছি। এখনও শিখছি।’’

৯০টি ওয়ান ডে ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে রাহানের। তিনটি ওয়ান ডে সেঞ্চুরিও রয়েছে তাঁর ঝুলিতে। অথচ ভারতীয় ওয়ান ডে দলে সুযোগ পাওয়ার জন্য এখনও কসরত করতে হচ্ছে তাঁকে। 

রাহানে যখন ওয়ান ডে দলে জায়গা পাওয়ার চেষ্টায় মগ্ন, বাংলাদেশ শিবিরে তখন উদ্বেগের আশঙ্কা। শাকিব আল হাসান, তামিম ইকবালের মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের ছাড়াই ভারতের মতো শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে নামার চ্যালেঞ্জ নিতে হচ্ছে তাদের। কিন্তু শাকিবের অভাব যে পূরণ করা যায় না তা জানিয়ে দিলেন তরুণ ব্যাটসম্যান। মিঠুনের কথায়, ‘‘শাকিবের অভাব পূরণ করার মতো এখনও কেউ নেই। কোনও সন্দেহই নেই যে, শাকিব ও তামিমের অভাব আমরা কতটা অনুভব করব। যে কোনও পরিস্থিতিতে দলকে ঘুরে দাঁড়াতে সাহায্য করত শাকিব ভাই। তবে বর্তমান দলের প্রত্যেকে ভাল ফল করার জন্য মরিয়া। ধারাবাহিক ভাবে পারফর্ম করতে না পারলে ভারতের বিরুদ্ধে পাঁচ দিন টিকে থাকা কঠিন।’’  

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন