কলকাতা লিগ শুরু হতে আর বাহাত্তর ঘণ্টা বাকি। অথচ সরকারিভাবে সূচি প্রকাশের দিনেও ডার্বি-সহ নানা বিষয়ে ধোঁয়াশা থেকেই গেল। 

শনিবার বিকেলে আইএফএ সচিব উৎপল গঙ্গোপাধ্যায় ক্রীড়া সাংবাদিক ক্লাবে লিগ-স্পনসরদের সঙ্গে নিয়ে  সাংবাদিক সম্মেলন করলেন। সেখানে  তিনি না পারলেন মরসুমের প্রথম টুনার্মেন্টের পুরো সূচি ঘোষণা করতে। না কাটাতে পারলেন ডার্বি-জট।

প্রথম দফায় ২৭ জুলাই থেকে ১৪ অগস্ট পর্যন্ত যে সূচি প্রকাশ করা হয়েছে তাতে তিন প্রধান ওই সময়ের মধ্যে তিনটে করে ম্যাচ খেলবে। ৪ অগস্ট ইস্টবেঙ্গলের প্রথম খেলা ভবানীপুরের সঙ্গে। মহমেডান-আর্মি একাদশ ৫ অগস্ট। এবং মোহনবাগান নামছে ৬ অগস্ট। প্রতিপক্ষ এরিয়ান। এ সবের মধ্যে সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ উৎপলবাবুর দাবি। ‘‘সেপ্টেম্বরের ১০ তারিখের মধ্যে কলকাতা লিগ শেষ করে দেব।’’ যতটা জোর দিয়ে কথাটা বললেন, ততটা আত্মবিশ্বাসী দেখাল না আইএফএ সচিবকে।

এ তো গেল সূচি। কিন্তু মরসুমের প্রথম ডার্বি কবে হবে? শনিবার যে সূচি ধরানো হল, তাতে কলকাতা লিগের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ম্যাচ নিয়ে একটা শব্দও লেখা নেই। উৎপলবাবু অবশ্য বললেন, ‘‘ডার্বি নিয়ে এখনও পর্যন্ত আমাদের কোনও আলোচনা হয়নি। মাঠ নিয়ে সমস্যা আছে। সেটা মিটলে ডার্বির তারিখ জানানো হবে।’’

সূচি অনুযায়ী পাঁচটা মাঠে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে কলকাতা লিগের ম্যাচ হবে। মোহনবাগান, মহমেডান, বারাসত,  হাওড়া স্টেডিয়াম ও যুবভারতী। কিন্তু  যুবভারতীর নাম থাকলেও, সেখানে যে ডার্বি করা সম্ভব নয়, সেটা স্বীকার করে নিলেন সচিব। আর বাকি মাঠে ডার্বি করার অনুমতি সম্ভবত পুলিশ দেবে না আইএফএ-কে। অগত্যা সেই শিলিগুড়ি। উৎপলবাবু বলছিলেন, ‘‘ইস্টবেঙ্গল ও রবীন্দ্র সরোবর স্টেডিয়াম এখনও তৈরি নয়। তাই ইস্টবেঙ্গলের ম্যাচ হবে হাওড়ায়। আর ডার্বির জন্য যদি এখানে মাঠ না পাওয়া যায়, তা হলে তো শিলিগুড়ি স্টেডিয়ামেই করতে হবে।’’

সূচি ও ডার্বি ম্যাচ নিয়ে ধোঁয়াশা থাকলেও, নতুন দু’টো ব্যাপার এ বার থেকে চালু হতে চলেছে কলকাতা লিগে। চ্যাম্পিয়ন টিমের জন্য ট্রফি ও লিগের সেরা কোচকে দেওয়া হবে অমল দত্ত মেমোরিয়াল পুরস্কার।