বিনেশ ফোগত, বজরং পুনিয়া, রবি দাহিয়ার পরে ভারতের আর এক কুস্তিগির দীপক পুনিয়াও টোকিয়ো অলিম্পিক্সের যোগ্যতা অর্জন করলেন। দীপক জুনিয়র বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন। শনিবার ৮৬ কেজিতে তিনি ফাইনালে উঠে টোকিয়োর টিকিট নিশ্চিত করলেন। সেমিফাইনালে দীপক ৮-২ ফলে হারিয়েছেন সুইৎজ়ারল্যান্ডের স্তেফান রাইখমুথকে।

কাজ়াখস্তানের নুর-সুলতানে রবিবার ফাইনালে সোনার জন্য দীপকের লড়াই হাসান ইয়াজ়দানিচারাতির সঙ্গে। এই হাসান রিয়ো অলিম্পিক্সের সোনাজয়ী। তখন ৭৪ কেজিতে লড়তেন। এখন নামছেন ৮৬ কেজিতে। এই বিভাগেও হাসান এশিয়ান গেমসে সোনাজয়ী। তাই সোনার জন্য ২০ বছরের দীপকের লড়াইটা কঠিন বলে মনে করছেন কুস্তি বিশ্লেষকেরা। তবে সফল হলে তিনি স্পর্শ করবেন একমাত্র ভারতীয় কুস্তিগির হিসেবে সুশীল কুমারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জয়ের নজির। 

এ বারের মতো ফল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে কখনও করেনি ভারত। ফোগত, বজরং, রবি— ব্রোঞ্জ জিতেছেন। দীপক সোনা বা রুপো পাবেন। চারটি পদক পাচ্ছেই ভারত। ২০১৩-তে ভারত বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে তিনটি পদক জিতেছিল। এখন দেখার রাহুল আওয়ারের সৌজন্য ভারত পঞ্চম পদক পায় কি না। ৬১ কেজিতে রাহুল ব্রোঞ্জের জন্য র‌্যাপেশেজে লড়বেন। সেমিফাইনালে তাঁকে হারান জর্জিয়ার বেকা লোমতাদজ়। 

ফাইনালে উঠে দীপক বলেছেন, ‘‘এই পদকটার স্বপ্ন অনেক দিন দেখছি। আজ বুঝিয়ে দিলাম স্বপ্নটা অলীক ছিল না। তবে পদক ও অলিম্পিক্সে যোগ্যতা অর্জন করাটা আমার কাছে জোড়া বিস্ময়। সুশীল ও বজরংই আমার প্রেরণা। পরামর্শের জন্য সব সময় বজরংয়ের সঙ্গে কথা বলি।’’ দীপককে অভিনন্দন জানান বজরংও।