শুধু সফল ভারতীয় দলের ক্রিকেটারদের নয়, তাঁদের যাঁরা দলে বেছেছেন, সেই নির্বাচকদেরও আর্থিক পুরস্কার দিচ্ছে বোর্ড। আইসিসি-র দুই টুর্নামেন্ট, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ও মেয়েদের বিশ্বকাপে ভারতের যে দুই দল রানার্স হয়েছে, তাদের নির্বাচকদেরও প্রত্যেককে ১৫ লাখ টাকা করে আর্থিক পুরস্কার দেওয়া হবে। বুধবার আদালত নিযুক্ত প্রশাসকদের (সিওএ) কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল।

তিন প্রাক্তন ক্রিকেটারকে বোর্ডের কমেন্ট্রি প্যানেলে রাখার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে এই বৈঠকে। সুনীল গাওস্কর, সঞ্জয় মঞ্জরেকর ও মুরলী কার্তিক। এই প্যানেলে ফেরানো হচ্ছে হর্ষ ভোগলেকে। তবে স্বার্থসংঘাত এড়াতে এ বার থেকে এঁদের মুচলেকা দিতে হবে। ক্রিকেট ও ক্রিকেটারদের সঙ্গে জড়িত কোনও ম্যানেজমেন্ট সংস্থার সঙ্গে এঁদের কোনও সম্পর্ক থাকা চলবে না, এমনই শর্ত দেওয়া হবে গাওস্করদের। প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের নিজেরই একটি ম্যানেজমেন্ট সংস্থা রয়েছে। স্বার্থসংঘাতের শর্ত অনুসারে তা থাকা উচিত নয় বলে তাঁর বিদায়ী চিঠিতে মন্তব্য করেছিলেন সিওএ সদস্য রামচন্দ্র গুহ। এই শর্ত মেনে নিয়ে বোর্ডের চুক্তিতে সই করবেন কি না তিনি, সেটাই দেখার। 

আরও পড়ুন: ভারতকে ট্রফি জিতিয়ে শ্রেয়সের মুখে রাহুল-স্তুতি

এ দিন একাধিক বিষয় নিয়ে বৈঠকে বসেছিলেন প্রশাসকরা। তার মধ্যে দু’টি বিষয়ে সিদ্ধান্ত বোর্ডের সদস্যদের উপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ভারতের ক্রিকেট দলের অলিম্পিক্সে অংশগ্রহণ এবং মহম্মদ আজহারউদ্দিনের বকেয়া সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত। বোর্ডের সাধারণ সভায় এই সিদ্ধান্তগুলো নেওয়া হবে। শ্রীসন্ত নিয়ে আদালতের রায় বোর্ডের আইন বিভাগ খতিয়ে দেখার পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ঘরোয়া ক্রিকেটের পারিশ্রমিক বাড়ানোর বিষয়টিও বোর্ড কোষাধ্যক্ষের উপর ছাড়া হয়েছে। তিনি প্রস্তাব দেওয়ার পর এই নিয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে। ২৩ অগস্ট সিওএ-র পরবর্তী বৈঠকে এই নিয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে। সিওএ বিভিন্ন রাজ্য সংস্থাগুলিকে তাদের সদস্যদের তালিকা পাঠানোর নির্দেশ দেওয়ার পরে এ পর্যন্ত মোট দশটি সংস্থা সেই তালিকা পাঠিয়েছে।