দর্শকদের বিদ্রুপ এবং স্লেজিং সামলানোর জন্য কী করা উচিত স্টিভ স্মিথ এবং ডেভিড ওয়ার্নারের? উত্তরটা দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন ফাস্ট বোলার ব্রেট লি। তাঁর টোটকা হল, অস্ট্রেলিয়ার দুই ক্রিকেটারকে কোনও বিদ্রুপ গায়ে মাখলে চলবে না। স্লেজিংয়ের মুখে পড়ে চামড়াটা মোটা রাখতে হবে।

স্মিথ এবং ওয়ার্নারকে নিয়ে লি বলেছেন, ‘‘ওদের দু’জনের আর কিছু প্রমাণ করার নেই। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলতে পেরেই ওরা খুশি। মাঠে ফিরতে পেরেই ওরা তৃপ্ত। আইপিএলে দেখেছি, দুরন্ত ফর্মে ছিল ওয়ার্নার। স্মিথও ফিরে এসে সেঞ্চুরি করেছে। সতীর্থরা ওদের দু’জনকে সাদরে গ্রহণ করেছে। স্মিথ, ওয়ার্নার দলে ফিরে আসায় অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ জয়ের সম্ভাবনাও অনেক বেড়ে গিয়েছে।’’ 

এর পরেই অবশ্য দুই ক্রিকেটারকে সতর্ক করে দিয়ে লি বলেছেন, ‘‘তবে ওখানে বার্মি আর্মি (ইংল্যান্ড সমর্থকদের দল) আছে। কেভিন পিটারসেনের মতো প্রাক্তন ক্রিকেটার আছে। কেপি তো এখনই আমার কাছে ওদের দু’জনকে নিয়ে নানা কথা বলতে শুরু করেছে। কোনও সন্দেহ নেই, বিশ্বকাপের সময় স্মিথ, ওয়ার্নারকে স্লেজিংয়ের মুখে পড়তে হবে। লেটা সামলাতে গেলে ওদের চামড়াটা মোটা হতে হবে। কিছু গায়ে মাখলে চলবে না।’’

লি এও মনে করেন, অস্ট্রেলিয়া ঠিক সময়ে ছন্দ ফিরে পাচ্ছে এবং অ্যারন ফিঞ্চের দলের বিশ্বকাপ জেতার ক্ষমতা আছে। বিশ্বকাপজয়ী অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন ফাস্ট বোলার বলেছেন, ‘‘আমাদের কয়েকটা ম্যাচ পরপর ভাল খেলতে হবে। তা হলেই কিন্তু ছন্দ পেয়ে যাবে দলটা। ছ নম্বর বিশ্বকাপটা যদি অস্ট্রেলিয়া জিততে পারে, তা হলে দারুণ ব্যাপার হবে। বিশ্বকাপ জেতার অনুভূতিটা কেমন, তা আমি জানি। মনে হয়, বিশ্বকে শাসন করছি।’’ লি আরও বলেন, ‘‘আমার মনে হয়, অস্ট্রেলিয়াই এ বার কাপটা জিতবে। ওদের প্রতি আমার পূর্ণ আস্থা আছে। ফিঞ্চদের দলটা দারুণ। সব বিভাগে ভাল ক্রিকেটার আছে। ওরা আস্তে আস্তে 

সেরা ফর্মে পৌছচ্ছে।’’