খলিস্তানি স্লোগানে চাঞ্চল্য স্টেডিয়ামে
প্রত্যক্ষদর্শীদের মনে হয়েছে, এই একই দল বার্মিংহামের ৩০ জুন ভারত-ইংল্যান্ড ম্যাচের দিনেও স্টেডিয়ামে গোলমালের চেষ্টা করেছিল।
Khalistani Slogan

বিতর্ক: সেই দর্শককে আটক করে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। মঙ্গলবার। ছবি: রয়টার্স

টি-শার্টে লেখা ‘পঞ্জাব রেফারেন্ডাম ২০২০’। মুখে খলিস্তানের দাবিতে স্লোগান। মঙ্গলবার এক দল শিখ বিচ্ছিন্নতাবাদীর এ-হেন আচরণে চমকে যায় ওল্ড ট্র্যাফোর্ড স্টেডিয়াম। ভারত-নিউজ়িল্যান্ড সেমিফাইনাল চলাকালীন গ্যালারির এই ঘটনা ঘিরে সৃষ্টি হয় চাঞ্চল্য। পুলিশ অবশ্য দ্রুত বিক্ষোভকারীদের স্টেডিয়াম থেকে বার করে দেয়। বৃহত্তর ম্যাঞ্চেস্টারের পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দু’জনকে তারা স্টেডিয়ামে সম্প্রীতির পরিবেশ নষ্ট করার অভিযোগে আটকও করে। পরে অবশ্য তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের মনে হয়েছে, এই একই দল বার্মিংহামের ৩০ জুন ভারত-ইংল্যান্ড ম্যাচের দিনেও স্টেডিয়ামে গোলমালের চেষ্টা করেছিল। সে-দিনও নিরাপত্তারক্ষীরা তাদের স্টেডিয়ামে বেশি ক্ষণ থাকতে দেননি। এই ঘটনা নিয়ে বিক্ষোভকারীদের সমর্থনে স্থানীয় আন্দোলনকারীরা বিবৃতিও দেন। তাঁদের পক্ষ থেকে পরমজিৎ সিংহ পাম্মা তীব্র ভাষায় প্রতিবাদ জানান ম্যাঞ্চেস্টার-পুলিশের আচরণের। শিখদের ওই গোষ্ঠীর তরফে এ-সব কথা বলা হলেও আগন্তুকেরা স্টেডিয়ামে খলিস্তানের সমর্থনে স্লোগান দিয়েছে। তাতেই আপত্তি আইসিসি-র। বিষয়টি কেন আপত্তিকর, বোঝাতে খলিস্তান প্রসঙ্গই টেনেছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা। প্রসঙ্গত, গ্রুপে ভারতের আগের ম্যাচেও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি হয় হেডিংলের আকাশে ভারত বিরোধী ব্যানার ঝুলিয়ে একটি বিমান ওড়ায়। যে কারণে, বিশ্বকাপের নকআউট পর্বে ম্যাচ-কেন্দ্রের আকাশে বিমান ওড়ার উপরেই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।  

ম্যাচের
Live
স্কোর