বিশ্বকাপে ভারত বনাম পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে নতুন বিতর্ক উস্কে দিলেন বীরেন্দ্র সহবাগ। শুক্রবার পানাজিতে এক অনুষ্ঠানে প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার জানিয়ে দেন, ক্রিকেট মাঠে ভারত-পাক যুদ্ধে তাঁরা হারতে চান না।

প্রসঙ্গত গত ফেব্রুয়ারিতে কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সন্ত্রাসবাদী হামলায় চল্লিশ জন ভারতীয় জওয়ান নিহত হওয়ার পরেই বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে বয়কট করার দাবি তীব্র হয়ে ওঠে। সচিন তেন্ডুলকর থেকে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের মতো প্রাক্তন ক্রিকেটারেরা দাবি জানান, পাক ম্যাচ খেলা উচিত নয় ভারতের। সচিনদের বক্তব্যে সমর্থন জানিয়েছিলেন সহবাগও। তিনিও বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে বয়কট করার জন্য জোর সওয়াল করেছিলেন। তবে শুক্রবার তাঁর গলাতে শোনা যায় অন্য সুর। তিনি বলেছেন, ‘‘ক্রিকেটে ভারত-পাক ম্যাচ যুদ্ধের চেয়ে কোনও অংশে কম যায় না। আর আমরা সেই যুদ্ধে এ বারও হারতে চাই না।’’

বৃহস্পতিবার ইসলামাবাদে এক অনুষ্ঠানে পাকিস্তান অধিনায়ক বিশ্বকাপে ভারত বনাম পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে নতুন ভাবে খোঁচা দেন। তিনি বলেছেন, ‘‘ভারত আমাদের বিরুদ্ধে খেলবে কি না, সেটা আমি কী ভাবে বলতে পারি। আমরা তো ওদের সঙ্গে খেলার জন্য তৈরি। কিন্তু বাকিরা যদি তা নিয়ে অন্য কিছু চিন্তাভাবনা করেন, সেটা নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। ফলে সেটা নিয়ে আমরা খুব একটা মাথা ঘামাতে চাইছি না। আমরা নিজেদের দলকে গুছিয়ে নিতে চাই বিশ্বকাপের জন্য।’’ বরং নিজের দল নিয়ে সরফরাজ় বলেছেন, ‘‘অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজে দলের পারফরম্যান্স খতিয়ে দেখা হয়েছে। বেশ কয়েকটি জায়গায় এখনও অনেক ফাঁক রয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব সেই দুর্বলতা কাটিয়ে ফেলতে হবে। বিশ্বকাপে সামগ্রিক ভাবে শক্তিশালী দল নিয়েই আমরা প্রথম ম্যাচ থেকে খেলতে চাই।’’ 

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশের পরে পাক দলের কোচ মিকি আর্থার জানিয়েছিলেন, ক্রিকেটারদের ফিটনেস সংক্রাম্ত সমস্যা রয়েছে। শুধু তাই নয়। প্রাক্তন পাক অধিনায়ক ওয়াসিম আক্রম জানান, বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হতে গেলে পাক ক্রিকেটারদের খাদ্য তালিকায় পরিবর্তন আনতেই হবে। বিশেষ করে, ক্রিকেটারদের বিরিয়ানি খাওয়া প্রথমেই বন্ধ করে দিতে হবে। সেই প্রশ্নেরও জবাব দিয়েছেন সরফরাজ়। তিনি বলেছেন, ‘‘আক্রম ভাইয়ের মন্তব্য আমি শুনেছি। কিন্তু আমি ব্যক্তিগত ভাবে বিরিয়ানি খাওয়া বন্ধ করতে পারব না।’’ সেখানেই না থেমে তিনি আরও বলেছেন, ‘‘আমি করাচির বিরিয়ানি সবচেয়ে বেশি পছন্দ করি। ওটা ছাড়তে পারব না। এবং আমি মনে করি বিরিয়ানি খাওয়ার সঙ্গে ফিটনেসের কোনও সম্পর্ক নেই।’’