• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অধিনায়ক কৃতিত্ব দিচ্ছেন বোলিংকে

Taheer and Bhajji
স্পিন-অস্ত্রে বাজিমাত তাহির, হরভজনদের। আইপিএল।

Advertisement

আইপিএল ফাইনালের ছাড়পত্র আদায় করার জন্য দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার পর্যন্ত অপেক্ষা করা। তবে তা নিয়ে ভাবিত নন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। তারুণ্যে পূর্ণ দিল্লি ক্যাপিটালসকে হারিয়ে ‘ড্যাডিস আর্মি’ (অধিকাংশ ক্রিকেটারই মধ্য তিরিশ পেরিয়েছেন) নামে পরিচিত চেন্নাই সুপার কিংস অধিনায়ক জানালেন, দলের খেলায় তিনি মুগ্ধ।

শুক্রবার দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে ছয় উইকেটে জয়ের পর ধোনি বলেছেন, ‘‘এই ধরনের ম্যাচে সতীর্থদের কাছ  থেকে যে ধরনের ক্রিকেট আশা করেছিলাম, সেটাই হয়েছে। যে ভাবে ওরা ১৪৭ রান তাড়া করেছে, সেটা আমাদের কাছে খুবই ইতিবাচক বলে মনে হয়েছে।’’ পাশাপাশি ধোনি কৃতিত্ব দিয়েছেন বিশাখাপত্তনমের উইকেটকেও। তিনি বলেছেন, ‘‘ম্যাচটা সাড়ে সাতটায় শুরু বলে আমার ধারণা কিউরেটর পিচে সামান্য জল দিতে বাধ্য হয়েছিলেন। তাতে কিন্তু স্পিনাররা উইকেট থেকে টার্ন পেয়েছে। ফলে আমরা ঠিক সময়েই উইকেটগুলো তুলে নিয়েছি।’’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘‘দিল্লি দলে বাঁ হাতি ব্যাটসম্যানের সংখ্যা বেশি। মাঠের আয়তনও তুলনায় ছোট ছিল। ফলে ওদের থামাতে আমরাও বাঁ হাতি স্পিনার হিসেবে জাডেজাকে ব্যবহার করেছিলাম। সেটা কাজে দিয়েছে।’’ 

শুক্রবারের বোলিং ব্রিগেড যে তাঁকে সন্তুষ্ট করেছে, তা মেনে নিয়েছেন ধোনি। তিনি বলেছেন, ‘‘ম্যাচ জেতার প্রধান শর্তই হল দ্রুত বিপক্ষের উইকেট তুলে নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে সমস্ত কৃতিত্ব বোলারদেরই।’’ সেখানেই না থেমে ধোনি আরও বলেছেন, ‘‘অধিনায়ক হিসেবে আমি এটা বলতে পারি, ওদের থেকে কী চাইছি। কিন্তু বোলাররা কোথায় বল রাখছে, তার উপরেই সমস্ত কিছু নির্ভর করে। বোলিং ব্রিগেডকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। তবে ভাল হত, ওপেনিং জুটি ম্যাচ শেষ করে বেরিয়ে এলে।’’

ম্যাচের সেরা ফ্যাফ ডুপ্লেসি বলেছেন, ‘‘গত পাঁচ-ছয়টি ম্যাচে বড় রান করতে পারিনি আমরা। তাই অতীত অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে শুরু থেকে বড় শট খেলি। দরকার ছিল ভাল একটা পার্টনারশিপের। সেটা কাজে লেগেছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন