• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

১০ ওভার ডট বল খেলেও কি জেতার আশা করতে পারে কেকেআর?

Dinesh Karthik and Rohit Sharma
দীনেশ কার্তিক ও রোহিত শর্মা। — ফাইল চিত্র।

Advertisement

আইপিএল থেকে বিদায় কেকেআর-এর। কেকেআর-এর করা সাত উইকেটে ১৩৩ রান মুম্বই ইন্ডিয়ান্স করে ফেলে ১৬.১ ওভারেই। নাইটদের রান তাড়া করতে নেমে কুইন্টন ডি’ ককের (৩০) উইকেট কেবল হারায় মুম্বই। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে যান রোহিত শর্মা (৫৫) ও সূর্যকুমার যাদব (৪৬)। 

আসল সময়েই জ্বলে উঠতে পারল না কেকেআর-এর ব্যাটসম্যানরা। পরিসংখ্যান বলছে, ৬০টি ডট বল খেলেছেন নাইট ব্যাটসম্যানরা। অর্থাৎ ১০ ওভার কোনও রান করেনি কেকেআর। রবিন উথাপ্পাই খেলেছেন ২৫টি ডট বল। মরণবাঁচন ম্যাচে কোনও টিম যদি ৬০টি ডট বল খেলে, তা হলে কি সেই দল জেতার আশা করতে পারে? নাইটদের ব্যাটিং দেখে এমন প্রশ্নই উঠল সোশ্যাল মিডিয়ায়। কেকেআর ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ পৌঁছে গেল প্লে অফে।  

অথচ এমন তো হওয়ার কথা ছিল না! টস জিতে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স এ দিন ব্যাট করতে পাঠায় কেকেআর-কে। শুরুতে স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন ক্রিস লিন। ২৯ বলে মারমুখী ৪১ রান করেন। লিনের ব্যাটিং বুকে বল এনেছিল নাইট-ভক্তদের। কিন্তু খেলা যত গড়াতে থাকে, ততই শোকে মূহ্যমান হয়ে পড়েন কেকেআর সমর্থকরা। 

আগের দিন ম্যাচের সেরা হয়েছিলেন শুবমান গিল। এদিন তিনি করলেন ৯। হার্দিক পাণ্ড্যর শিকার তিনি। ক্রিস লিনও পাণ্ড্যর ওভারে ফেরেন। ইডেনে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে আন্দ্রে রাসেলকে ব্যাটিং অর্ডারে তুলে আনা হয়েছিল উপরের দিকে। সেই ম্যাচে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিলেন রাসেল। ম্যাচ জিতেছিল কেকেআর। এ দিন তাঁকে পরে নামানো হল। খাতা খুলতে পারেননি ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার। রাসেল ব্যর্থ হওয়ায় কেকেআরও ব্যর্থ। মালিঙ্গার বল ছাড়বেন না খেলবেন করতে গিয়ে ডি’ ককের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার।  

রাসেলের আগে ব্যাট করতে নেমে কার্তিক ও উথাপ্পা কমিয়ে দিলেন দলের রানের গতি। এখানেই প্রশ্ন তুলছেন নাইট-ভক্তরা। রাসেলকে কেন আগে পাঠানো হল না? কেন তাঁর আগে নামলেন কার্তিক-উথাপ্পা? এই সব প্রশ্নের উত্তর আর কে দেবে? কার্তিক আউট হলেন মাত্র ৩ রান করে। নীতীশ রাণা একটা চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু মালিঙ্গার বলে ঠকলেন তিনিও। উথাপ্পার নামের পাশে লেখা ৪৭ বলে ৪০ রান। এই রানে কোনও গরিমা নেই। ২৫টা ডট বল খেলে ভক্তদের দুয়োধ্বনি শুনতে হল তাঁকে। সুনীল নারাইন ওপেনার হিসেবে ভয়ঙ্কর। অথচ আসল ম্যাচে তাঁকে পাঠানো হল রিঙ্কু সিংহেরও পরে। নিজেদের দোষেই কেকেআর ছিটকে গেল টুর্নামেন্ট থেকে। টানা ছ’টি ম্যাচ হারের পরেও প্লে অফে পৌঁছনোর আশা বেঁচেছিল নাইটদের। কিন্তু পাহাড়প্রমাণ ভুলে ওয়াংখেড়েতে ডুবতে হল কেকেআর-কে। 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন