• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কামিন্সে আস্থাই রাখছেন কার্তিক

Cummings
প্রশ্নের মুখে কামিন্স। —ফাইল চিত্র।

নিলামে ১৫.৫ কোটি টাকায় তাঁকে নিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। কিন্তু প্রথম ম্যাচে পুরো চার ওভার বল করাতে পারেননি দীনেশ কার্তিক। তিন ওভারে ৪৯ রান দেন প্যাট কামিন্স। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে ৪৯ রানে হেরে আইপিএল যাত্রা শুরু করে কেকেআর। 

বুধবার রাত থেকেই কামিন্সকে নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়। ম্যাচ শেষে নাইট অধিনায়ক দীনেশ কার্তিককে প্রশ্ন করা হয়, কামিন্সের তিন ওভারই কি ম্যাচের রং পাল্টে দিল? অধিনায়ক কার্তিক মানতে নারাজ। তিনি বলেন, ‘‘একটা ম্যাচ দিয়ে কামিন্সকে বিচার করা উচিত না। ম্যাচের দিন দুপুর সাড়ে তিনটে-চারটে নাগাদ ওর নিভৃতবাস শেষ হয়। তখনই খেলার অনুমতি পায় ও। রুম থেকে সরাসরি ম্যাচ খেলতে নামতে হয়েছে।’’ যোগ করেন, ‘‘কামিন্স যে বিশ্বের অন্যতম সেরা বোলার, সন্দেহ নেই। বিশ্বাস করি, ও  দ্রুতই ছন্দ ফিরে পাবে।’’

তা হলে নাইটদের হারের কারণ কী? কার্তিকের জবাব, ‘‘পিচ কিছুটা মন্থর ছিল, তাই বোলাররা বেশ কিছু স্লোয়ার বল করেছে। যা খাটো লেংথে পড়ে গিয়েছে। সেই ফায়দা তুলেছে মুম্বই।’’ কার্তিক যদিও প্রশংসা করে গেলেন শিবম মাভির। চার ওভারে ৩২ রান দিয়ে দুই উইকেট তুলে নেন তরুণ পেসার। এমনকি তাঁর প্রথম ওভার ছিল উইকেট-মেডেন। গত বছর চোটের জন্য ছিটকে গিয়েছিলেন মাভি। বুধবার তাঁর প্রত্যাবর্তন দেখে মুগ্ধ অধিনায়ক। কার্তিকের কথায়, ‘‘দেখে ভাল লাগছে যে, আমাদের একজন পেসার তৈরি হচ্ছে বড় পর্যায়ের জন্য। গত বছর চোটের জন্য খেলতে পারেনি। এ বছর দলে ফিরেই দারুণ শুরু করেছে মাভি।’’

ম্যাচের পরের দিন প্রথম একাদশের কেউই অনুশীলন করেননি। তবে কমলেশ নগরকোটি, প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ, আলি খানেরা নেট করেছেন। বিশ্রামে ছিল মুম্বই শিবিরও। বুধবার ৫৪ বলে ৮০ রান করে ম্যাচের সেরা রোহিত শর্মা। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মুম্বই অধিনায়ক বলে যান, ‘‘মরুশহরের পরিবেশে বড় ইনিংস খেলা খুবই কঠিন। ইনিংসের শেষের দিকে সত্যি ক্লান্ত হয়ে গিয়েছিলাম। এই ম্যাচ থেকে এটাই শিখলাম যে, শুরুর দিকে উইকেটে থিতু হয়ে গেলে শেষ পর্যন্ত খেলে যেতে হবে।’’

প্রথম ম্যাচে সফল হতে পারেননি রোহিত। দ্বিতীয় ম্যাচে রান পেয়ে তাঁর প্রতিক্রিয়া, ‘‘প্রথম ম্যাচে চেয়েছিলাম সময় নিয়ে উইকেটে থিতু হতে। দ্বিতীয় ম্যাচে সেই চেষ্টা সফল হয়েছে।’’ যোগ করেন, ‘‘প্রত্যেকটা পুল শট ভাল টাইমিং হয়েছে। ম্যাচের আগের দিন এ ধরনের শট ঝালিয়ে নিয়েছি। তা প্রয়োগ করতে পেরে ভাল লাগছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন