জুভেন্তাস ১        ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড ২

শেষ পাঁচ মিনিটে জোড়া গোল করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বড় অঘটন ঘটিয়ে দিল ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড। তুরিনে গিয়ে পিছিয়ে থাকা অবস্থা থেকেও জুভেন্তাসের জয়ের রথ থামিয়ে দিলেন পল পোগবারা। তেমনই পুরনো ক্লাবের বিরুদ্ধে গোল করে শেষরক্ষা হল না ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর। 

এ ভাবে যে সকলকে চমকে দেবেন জোসে মোরিনহোর ফুটবলাররা, বোধহয় কেউ ভাবেননি। শুধু তা-ই নয়, চাপে থাকা ম্যান ইউ-এর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নক-আউট পর্যায়ে ওঠার সম্ভাবনাও উজ্জ্বল হল।

নিজের পুরনো ক্লাবের কাছে হেরে যাওয়াটা মেনে নিতে পারলেন না ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। তিনি পরিষ্কার বলে দিলেন, জুভেন্তাস বুধবার কার্যত ৩ পয়েন্ট উপহার দিয়েছে ম্যান ইউকে। হতাশ রোনাল্ডোর মন্তব্য, ‘‘চ্যাম্পিয়ন্স লিগ একটা বিশেষ প্রতিযোগিতা। এখানে এগিয়ে থাকলেও আলগা দেওয়ার কোনও জায়গা নেই। সেটা করলে যে কোনও কিছু হতে পারে।’’ তাঁর আরও প্রতিক্রিয়া, ‘‘আজই যেমন ৯০ মিনিট ধরে আমরা প্রাধান্য বিস্তার করে গেলাম। কত সুযোগ পেলাম। অন্তত তিন থেকে চারটি গোল করার কথা আমাদের। কিন্তু এক সময় আমদের মধ্যে গা-ছাড়া ভাব দেখা গেল। যার উপযুক্ত শাস্তিও পেতে হল আমাদের।’’ 

নিজের পুরনো ক্লাবকে একহাত নিয়ে রোনাল্ডোর আরও মন্তব্য, ‘‘সারা খেলায় ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড কিছুই করতে পারেনি। এখানে ভাগ্যের কথা বলারও মানে হয় না।  কারণ, ভাগ্য নিজেকেই গড়তে হয়। পরিষ্কার ভাষায় আমরা আজ ওদের জয় উপহার দিলাম।’’ এখানেই থামেননি পর্তুগিজ তারকা। সঙ্গে জুভেন্তাসকে উদ্বুদ্ধ করার চেষ্টাও করেছেন। বলেছেন, ‘‘এখন আমাদের একটাই কাজ। মাথা উঁচু করে এগিয়ে চলা। মনে রাখতে হবে আমরা দারুণ খেলেছি। নিজেদের গ্রুপে এখনও আমরাই শীর্ষে। তাই ভেঙে পড়ার কিছু হয়নি।’’ 

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে হারের মধ্যেই পর্তুগালের জাতীয় দলে রোনাল্ডোর না থাকা নিয়ে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। নেশনস লিগে ইটালি এবং পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচের জন্য দল ঘোষণা করা হয়েছে তাঁকে ছাড়াই। পর্তুগালের কোচ ফের্নান্দো স্যান্টোস ইঙ্গিতপূর্ণ ভাবে বলেছেন, ‘‘আমি রোনাল্ডোকে নিয়ে একটাই কথা বলতে পারি। আশা করব, ও আরও ব্যালন ডি’অর জিতুক। ওর এই পুরস্কার প্রাপ্য এবং না পেলে অন্যায় হবে।’’ তাঁর মন্তব্য শুনে মনে হচ্ছে, দেশের হয়ে খেলার জন্য খুব মুখিয়ে হয়তো নেই রোনাল্ডো। তাই কোচের এমন ‘কটাক্ষ’। স্যান্টোস জানাননি, পরের ম্যাচগুলিতেও রোনাল্ডোকে দেখা যাবে কি না। উল্টে বলে দিয়েছেন, ‘‘এটা শুধু রোনাল্ডোকে নিয়ে ব্যাপার নয়। একটা দলের ব্যাপার। কাউকেই বাদ দেওয়া হচ্ছে না। এটা নিয়ে এত হইচইয়েরও কিছু নেই।’’ 

বুধবার রোনাল্ডোদের বিরুদ্ধে ম্যান ইউ-এর সেরা গোলটা অবশ্য করে গেলেন খুয়ান মাতা। খেলা শেষের ঠিক পাঁচ মিনিট আগে অসাধারণ বাঁক খাওয়ানো ফ্রি-কিকে। ম্যান ইউ-এর জয়ের গোল অবশ্য আত্মঘাতী। অ্যাশলে ইয়ংয়ের ফ্রি-কিক বার করতে গিয়ে বক্সের জটলায় নিজেদের গোলেই বল ঢুকিয়ে দিলেন জুভেন্তাসের লিয়োনার্দো বোনুচ্চি।

প্রথমার্ধ গোলশূন্য শেষ হওয়ার পরে ৬৫ মিনিটে পুরনো ক্লাবের বিরুদ্ধে  জুভেন্তাসকে ১-০ এগিয়ে দেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোই। দুরন্ত ভলিতে গোল করে। নিজের কাঁধের উপর দিয়ে আসা লিয়োনার্দো বোনুচ্চির লম্বা পাস মাটিতে পড়ার আগেই প্রচণ্ড গতিতে শট নেন পর্তুগিজ তারকা। যা দাভিদ দা হিয়াকে হতচকিত করে জালে জড়িয়ে যায়। জুভেন্তাসের জার্সিতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এটাই রোনাল্ডোর প্রথম গোল।

গোটা ম্যাচে ম্যান ইউ সে ভাবে আক্রমণই করতে পারেনি। কিন্তু তার পরেও দু’দলে পার্থক্য গড়ে দিল মাতার দুরন্ত ফ্রি-কিক এবং লিয়োনার্দো বোনুচ্চির আত্মঘাতী গোল। ম্যাচের সেরাও নির্বাচিত হন মাতাই। হেরে গেলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এইচ গ্রুপে শীর্ষে রয়েছে জুভেন্তাসই। ৪ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ৯। খুব পিছিয়ে নেই দু’নম্বরে থাকা ম্যান ইউ। তাদের পয়েন্ট ৪ ম্যাচে ৭। তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে রয়েছে যথাক্রমে ভ্যালেন্সিয়া (৫ পয়েন্ট) এবং ইয়ং বয়েজ (১ পয়েন্ট)।