• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এশিয়াড থেকে সরে দাঁড়ালেন লিয়েন্ডার

Leander
লিয়েন্ডার পেজ। —ফাইল চিত্র।

বিশেষজ্ঞ ডাবলস পার্টনার না পেয়ে বীতশ্রদ্ধ তিনি। তাই আসন্ন এশিয়ান গেমস থেকে  নাম তুলে নিলেন লিয়েন্ডার পেজ। বৃহস্পতিবার নিজেই সংবাদসংস্থাকে পেজ জানিয়ে দেন এই কথা, যা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছিল। এমনকি, ভারতীয় দলের কোচ জিশান আলিও বলেছিলেন, তিনি লিয়েন্ডারের খেলা নিয়ে নিশ্চিত নন। অবশেষে সেই জল্পনার অবসান হল কিংবদন্তি টেনিস তারকার নিজের পাঠানো বার্তায়, যেখানে তিনি নিজেই জানান, ‘‘ভারাক্রান্ত হৃদয় নিয়ে জানাচ্ছি, আসন্ন এশিয়ান গেমসে খেলছি না।’’

১৮টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী ৪৫ বছর বয়সি লিয়েন্ডারকে ডাবলসে সুমিত নাগালের সঙ্গে জুটি বেঁধে খেলার নির্দেশ দিয়েছিল সর্বভারতীয় টেনিস সংস্থা। অন্য জুটিতে রোহন বোপান্না ও দ্বিবীজ শরণকে রাখা হয়, তাঁদেরই অনুরোধে। এশিয়াডে পাঁচটি সোনাজয়ী লিয়েন্ডারকে এর আগে ‘টপ’ প্রকল্প থেকেও বাদ দেওয়া হয়েছিল। এ বার ডাবলসের জন্য তাঁর উপযুক্ত সঙ্গী না দেওয়াটা কার্যত তাঁকে সরে দাঁড়াতে বলারই ইঙ্গিত। এটা বুঝতে পেরেই বোধহয় নিজেকে সরিয়ে নিলেন লিয়েন্ডার। তিনি জানান, ‘‘এটা খুবই দুঃখের যে, বহু সপ্তাহ আগে বারবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও একজন ডাবলস বিশেষজ্ঞকে আমরা এশিয়াডের দ্বিতীয় জুটিতে রাখতে পারলাম না।’’ বোপান্না ও শরণ নিজেরাই পরস্পরের সঙ্গে জুটি বেঁধে খেলার সিদ্ধান্ত নেন। ফলে কোচ জিশানের পক্ষে নাকি লিয়েন্ডার ও নাগাল বা রামকুমার রামনাথনকে  দ্বিতীয় জুটিতে রাখা ছাড়া উপায় ছিল না। রামকুমার সাধারণত সিঙ্গলস খেলোয়াড়, যিনি অনিয়মিত ভাবে ডাবলস খেলে থাকেন। কিন্তু নাগাল খুব খারাপ ফর্মে রয়েছেন। যিনি পেশাদার সার্কিটে টানা ন’টি প্রথম রাউন্ডের ম্যাচ হেরে এশিয়াডে খেলতে এসেছিলেন। এখানেই লিয়েন্ডারের প্রশ্ন, কেন দু’টি বিশেষজ্ঞ ডাবলস জুটি পাঠানো হল না এই প্রতিযোগিতায়?

তাঁর বক্তব্য, ‘‘সিঙ্গলসে পদক জয়ের উজ্জ্বল সম্ভাবনা আছে বলে রামনাথনকে ডাবলস খেলানো হচ্ছে না। কিন্তু শ্রীরাম বালাজি, বিষ্ণু বর্ধন, পূরব রাজা-রা তো এই মরসুমে অত্যন্ত ভাল খেলেছে। এঁদের মধ্যে যে কেউ এশিয়ান গেমসে আমাদের দলের শক্তি বাড়াতে পারত।’’ এঁরা কেউ সেরা একশোর মধ্যে রয়েছেন বা কেউ সম্প্রতি ছিলেন। কিন্তু তাঁদের দলে নেওয়া হল না। তাই লিয়েন্ডার মনে করছেন, তাঁর অনুপস্থিতি টেনিসে ভারতের পদকের সম্ভাবনার উপর প্রভাব ফেলবে না। এই বার্তায় লিয়েন্ডার আরও জানান, ‘‘কোচ জিশান আলির সঙ্গে রোহনের চোট নিয়ে অনেক কথা হয়েছে আমার। শুনে ভাল লাগছে যে, ওর চোট সেরে গিয়েছে ও রোহন ফিরে আসায় ভারতের ডাবলস পদক নিশ্চিত। ও না থাকলে আমার পক্ষে সরে দাঁড়ানো সম্ভব হত না। কারণ, ওদের জুটি বোধহয় দেশকে সোনা এনে দেবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন