ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুলের বিরুদ্ধে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে রবিবারের ম্যাচে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড পাচ্ছে না পল পোগবা এবং দাভিদ দা হিয়াকে। দু’জনেরই চোট। ২৬ বছরের ফরাসি তারকার পায়ে চোট। যা তাঁকে এই মরসুমে মারাত্মক ভোগাচ্ছে। অগস্টের শেষ থেকে মাত্র দু’টি ম্যাচ খেলতে পেরেছেন। গোলরক্ষক দাভিদ দা হিয়ার কুঁচকিতে চোট। স্ক্যান হবে। চোট পেয়েছেন ইউরো কোয়ালিফায়ার্সে খেলার সময়। 

এখন পর্যন্ত যা অবস্থা তাতে লিভারপুলের বিরুদ্ধে ম্যান ইউয়ের গোলরক্ষা করার প্রবল সম্ভাবনা আর্জেন্টাইন সের্খিয়ো রোমেরোর। পোগবা ৩০ সেপ্টেম্বর আর্সেনালের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচ খেলেন। যে ম্যাচ ১-১ ড্র হয়। নিউ ক্যাসলের বিরুদ্ধেও তিনি খেলতে পারেননি।

এ দিকে, আর্সেনালের মিডফিল্ডার মেসুত ওজ়িল এক সাক্ষাৎকারে তাঁর ক্লাব নিয়ে তাঁর যাবতীয় হতাশা ব্যক্ত করেছেন। এতদিন শোনা যাচ্ছিল, ম্যানেজার উনাই এমরির সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক তলানিতে পৌঁছেছে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে এ বার মাত্র একটা ম্যাচে তাঁকে খেলানো হয়েছে। 

বিরক্ত এবং হতাশ ওজ়িল যা বলেছেন তার মূল কথা, ক্লাবে তিনি অবিচারের শিকার। বলেছেন, ‘‘এখন যা অবস্থা দাঁড়িয়েছে, তাতে কোনও বড় ম্যাচে দল ভাল না খেললে পুরো দোষটা আমার উপর এসে পড়ে। যদি সেটাই সত্যি হয়, তা হলে যে যে বড় ম্যাচে আমি খেলিইনি এবং ফল খারাপ হয়েছে, সেখানে আমাকে কেন দোষী বলা হবে? আমার খেলা, না খেলার সঙ্গে যেন কোনও কিছুরই সম্পর্ক নেই। এ এক অদ্ভুত অবস্থা!’’ এখানেই থামেননি ওজ়িল। তাঁর আরও কথা, ‘‘জানি মানুষ আমার কাছ থেকে ভাল কিছু প্রত্যাশা করে। ওরা চায় ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ আমিই করি। কিন্তু সেটা সব সময় সম্ভব হয় না। দলে ফুটবলটা এগারো জনে খেলে। আমি একা নই। মনে রাখতে হবে প্রতিপক্ষের অনেকে আমাদের থেকে ভাল। সেই জন্যই আমরা হেরেছি বা ড্র করেছি।’’ আর্সেনালের ম্যানেজার এমেরি সম্প্রতি ওজ়িলকে না খেলানো প্রসঙ্গে মন্তব্য করেন, ‘‘যারা সেরা তারাই সুযোগ পায়। এখানে কাউকে বঞ্চিত করার গল্প নেই।’’