ইতিহাস বলছে, ৪৫ বছর আগে বিলি জিন কিং বনাম ববি রিগ্‌সের ম্যাচ টেলিভিশনে সর্বকালের সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল।

নতুন বছরের প্রথম দিনে তেমনই এক ঘটনার সাক্ষী হতে চলেছে ফের টেনিস বিশ্ব। আজ, মঙ্গলবার একুশ শতকীয় টেনিসের দুই কিংবদন্তি রজার ফেডেরার এবং সেরিনা উইলিয়ামস একে অপরের মুখোমুখি হতে চলেছেন। চলতি হপম্যান কাপে গতবারের চ্যাম্পিয়ন সুইৎজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। মিক্সড ডাবলস ইভেন্টে এই প্রথমবার দেখা যাবে দু’জনে মিলে জিতে ফেলা মোট ৪৩টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের অধিকারী দুই নক্ষত্রের (ফেডেরারের ২০টি, সেরিনার ২৩টি)  র‌্যাকেটের শাসন।

সেই ঐতিহাসিক ম্যাচ খেলতে নামার আগে উত্তেজিত ফেডেরার। বলেছেন, ‘‘আমাদের কাছে ব্যাপারটা যেমন রোমাঞ্চকর হতে চলেছে, আশা করব টেনিসপ্রেমীরাও দারুণ একটা দ্বৈরথ উপভোগ করবেন।’’ রজার আরও যোগ করেছেন, ‘‘কোর্টে এবং কোর্টের বাইরে সেরিনা যা কিছু অর্জন করেছে, আমি বরাবর তাকে সম্মান করি। কোর্টে আমরা দুজনেই খুবই আগ্রাসী মেজাজের প্রতিদ্বন্দ্বী এবং জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নামি। ফলে ম্যাচটা দারুণ হবে বলে মনে হচ্ছে।’’

এ বার যুক্তরাষ্ট্র ওপেন ফাইনালে আম্পায়ারের সঙ্গে সেরিনার প্রকাশ্য বাগ্‌যুদ্ধ নিয়ে মুখ খুলেছিলেন ফেডেরার। ২৩টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের অধিকারী সেরিনাকে সংযত থাকার এবং প্রতিযোগিতার নিয়ম মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছিলেন। তবে মঙ্গলবারের ম্যাচ খেলতে নামার আগে ফেডেরার মনে রাখছেন না সেই প্রসঙ্গ। তিনি বলেছেন, ‘‘সারা জীবনে এমন ঘটনা একবারই ঘটে। হয়তো পরে তা আর কোনও দিনই হবে না। পুরুষ এবং মহিলা নির্বিশেষে এই টেনিস বিশ্বে সেরিনাই অন্যতম সেরা চ্যাম্পিয়ন। ফলে ওর বিরুদ্ধে ম্যাচ খেলা আমার কাছেও বড় প্রাপ্তি হতে চলেছে।’’ যদিও ফেডেরার এ-ও জানিয়েছেন, অতীতে বেশ কয়েকবার উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন ডিনার পার্টিতে দেখা হলেও সেরিনার সঙ্গে তাঁর খুব ঘনিষ্ঠ পরিচয় নেই। তাঁর মন্তব্য, ‘‘সামান্য কিছ সৌজন্যমূলক কথাবার্তা ছাড়া ওর সঙ্গে আমার খুব বেশি পরিচয় নেই। সেরিনাও আমার সন্তানদের খবর জানতে চেয়েছে। পারস্পরিক পরিচিতির গণ্ডি সেখানেই সীমাবদ্ধ।’’

শুধু ফেডেরারই নন। মঙ্গলবারের ম্যাচ নিয়ে শিহরিত সেরিনাও। রবিবার হপম্যান কাপে গ্রিসের মারিয়া সাক্কারিকে ৭-৬, ৬-২ ফলে হারিয়ে ৩৭ বছরের সেরিনার প্রতিক্রিয়া, ‘‘রজারের সঙ্গে একই কোর্টে খেলব। এটা তো আমার কাছে স্বপ্নপূরণের মতো। এই দিনটার জন্য আমি দীর্ঘদিন ধরে অপেক্ষা করেছি। মাথা ঠান্ডা রেখে খেলতে হবে।’’

তবে ঐতিহাসিক ম্যাচের আগে নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে খুব একটা সন্তুষ্ট হতে পারছেন না সেরিনা। বলেছেন, ‘‘গোড়ালিতে হাল্কা একটা চোট পেয়েছি। তা ছাড়া ম্যাচে প্রচুর ভুল করেছি। সেগুলো নিয়েও সতর্ক থাকতে হবে। তবে অনেক দিন পর কোর্টে ফিরলাম। ফলে স্বাভাবিক ছন্দ ফিরে পেতে আরও খানিকটা সময় লাগবে। তবে মনে হচ্ছে অস্ট্রেলীয় ওপেনের আগে এই সঙ্কটগুলো কাটিয়ে 

উঠতে পারব।’’