তিনি কিংবদন্তি অ্যাথলিট। বিশ্বের দ্রুততম মানব। ১০০ মিটার, ২০০ মিটারের বিশ্বরেকর্ড তাঁর দখলে। এহেন উসেইন বোল্টই  এ বার পা রাখতে চলেছেন ফুটবলের দুনিয়া। যা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় রীতিমতো সাড়া পড়ে গিয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার গসফোর্ডে সেন্ট্রাল কোস্ট মেরিনার্স নামে একটি ফুটবল দলের হয়ে শুক্রবার অভিষেক ঘটাতে চলেছেন তিনি। এক অপেশাদার দলের বিরুদ্ধে প্রীতি ম্যাচে সম্ভবত ১০-১৫ মিনিটের জন্য নামবেন তিনি। পেশাদার ফুটবলার হয়ে উঠতে মরিয়া তিনি। চাইছেন ফুটবলার হিসেবে চুক্তিতে সই করতে। এই ম্যাচ সেই কারণেই তাঁর জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

বোল্টের ফুটবলে অভিষেক বলেই এই ম্যাচ নিয়ে সাড়া পড়ে গিয়েছে। পে টিভিতে সরাসরি দেখানোও হবে এই ম্যাচ। সেন্ট্রাল কোস্ট স্টেডিয়ামে হাজির থাকবেন হাজার দশেক সমর্থকও। সাধারণত, মরসুম শুরুর আগে এই ধরনের ম্যাচে ভিড় হয় না মাঠে। কিন্তু, বোল্ট কেমন ফুটবল খেলেন, তা দেখা যাবে বলেই তুমুল উত্সাহ সমর্থকদের মধ্যে।

ফুটবলের দুনিয়ায় নিজের কেরিয়ার গড়ার চেষ্টায় বিশ্বের দ্রুততম। ছবি: রয়টার্স।

গত মরসুমে ঘরোয়া এ-লিগে তলানিতে শেষ করা ক্লাব তাই আতসবাজির ব্যবস্থাও রাখছে মাঠে। যতক্ষণ না বোল্ট মাঠে নামেন, ততক্ষণ দর্শকদের বিনোদনের জন্য রাখা হচ্ছে অন্য ব্যবস্থাও। স্থানীয় এক সংবাদপত্র কার্ড বোর্ডে বোল্টের এক লাখ মুখোশ তৈরি করেছে। যা বিতরণ করা হবে সমর্থকদের মধ্যে। বোল্টের মুখোশ পরে মাঠে বোল্টকে দেখবেন ফুটবলপ্রেমীরা।

এই অবস্থায় আটবারের অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন কিছুটা চাপে পড়ে গিয়েছেন। বোল্ট বলেছেন, “গ্যালারিতে আমার মুখোশ পরে দর্শকরা থাকবেন শুনে অদ্ভূত লাগছে। তবে ব্যাপারটা আমার কাছে পুরোপুরি অজানা নয়। ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডেও এটা দেখেছি। তবে ফুটবলে প্রথমবার নামার সময় এটা বেশ নতুন নতুন লাগবে। একটু নার্ভাসও লাগবে মাঠে নামার সময়। আমার কাছে এটা এখন আর চ্যারিটিতে খেলা নয়। ফুটবলে কেরিয়ার গড়তে চলেছি আমি। আমার ভুল হতেই পারে। তবে নিজেকে গর্ব করার মতো কিছু উপহার দিতেই মাঠে নামব।”

অারও পড়ুন: যন্ত্রণা জিতেই সোনার মেয়ে স্বপ্না

অারও পড়ুন: ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে চতুর্থ টেস্টে ভারতের সম্ভাব্য একাদশ​

(ক্রিকেটের খবর,ফুটবলের খবর, টেনিসের খবর, হকির খবর - খেলার খবরের সেরা ঠিকানা আমাদের খেলা বিভাগ।