চলছে জুভেন্তাসের সঙ্গে ফিজিক্যাল ট্রেনিং। তারই ফাঁকে পরিবার নিয়ে সময় কাটাচ্ছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো।

মঙ্গলবার সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইটে তিন সন্তান এবং বান্ধবী জিওর্জিনাকে নিয়ে ছবি পোস্ট করেছেন রোনাল্ডো। তিনি লিখেছেন, ‘‘কঠোর অনুশীলনের পরে আমার সুন্দর পরিবারের সঙ্গে সময়টা ভালই কাটছে।’’ ইটালির সংবাদমাধ্যমের খবর, আগামী সপ্তাহ থেকেই তিনি পুরোদমে অনুশীলনে নেমে পড়বেন।

মাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রির অধ্যায় শেষ। জুভেন্তাসে নতুন মরসুমে ডাগআউটে থাকবেন প্রাক্তন চেলসি ম্যানেজার মাউরিসিয়ো সাররি। ফলে সমস্ত কিছু প্রথম থেকে শুরু করার আগে নতুন গুরুর সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনা সেরে ফেলেছেন রোনাল্ডো। ইটালির একটি পত্রিকা সেই খবর ফাঁস করেছে। যেখানে বলা হয়েছে, গত সপ্তাহে রোনাল্ডোর বিলাসবহূল প্রমোদতরীতে গোপনে গিয়েছিলেন সাররি। সেখানে তাঁদের দীর্ঘ সময় আলোচনা হয়েছে। তখনই রোনাল্ডো জানিয়ে দেন, তিনি কী ধরনের ফুটবল পছন্দ করেন এবং নতুন মরসুমে কী ভাবে খেলবেন।

ওই পত্রিকায় বলা হয়েছে, সাররিকে নাকি রোনাল্ডো জানিয়ে দেন, মাঠে তাঁর জায়গা কোথায় হবে তা নিয়ে আদৌ চিন্তিত নন। ম্যানেজার দলে স্বার্থে তাঁকে যেখানে খেলাতে চান, তিনি রাজি আছেন। রোনাল্ডো তাঁকে বলেন, ‘‘সচরাচর আমি বাঁ দিক দিয়ে খেলতে পছন্দ করি। তবে যদি দলের স্বার্থে আমাকে মাঝখান থেকে অথবা ডান দিক দিয়ে খেলতে হয়, তা হলেও কোনও সমস্যা নেই। আমি দ্রুত তার সঙ্গে মানিয়ে নেব। এ বার সেরি আ’র সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ক্লাবকে উপহার দেব সেটাই আমার লক্ষ্য।’’ যে কথা শুনে সন্তোষ প্রকাশ করেন সাররি। প্রাক্তন চেলসি ম্যানেজারও বলেন, ‘‘নতুন মরসুমে প্রত্যেকটি ম্যাচের আগে দলের রণকৌশল নিয়ে তোমার সঙ্গে আমি ব্যক্তিগত ভাবে কথা বলে দল তৈরি করব।’’ ওই পত্রিকায় দাবি করা হয়েছে, খোলামেলা মেজাজে সেই আলোচনায় দু’জনেই ছিলেন হাসিখুশি। পরে রোনাল্ডো তাঁকে প্রমোদতরীতে বেশ কয়েকটি জায়গা ঘুরিয়েও দেখান।

নতুন মরসুম নিয়ে আশাবাদী সাররিও। তিনি স্পষ্ট করে দিয়েছেন, রোনাল্ডোই তাঁর দলের সেরা অস্ত্র হতে চলেছে।  সাররি বলেছেন, ‘‘চেলসিতে আমি একটা দর্শন নিয়ে দলকে খেলাতাম। তবে এখানকার ছবি সম্পূর্ণ আলাদা। বিশেষ করে, দলে রোনাল্ডোর মতো বিশ্বসেরা তারকা থাকায় আমাকেও এ বার অনেক বেশি তৈরি থাকতে হবে। প্রত্যেক ম্যাচে উদ্ভাবনী ফুটবল খেলার কৌশল বার করতে হবে।’’ তিনি আরও যোগ করেন, ‘‘কাজটা মোটেও সহজ হবে না। তবে এই চ্যালেঞ্জটা আমি নিতে চাই। রোনাল্ডো আছে বলেই আমার কাজটা সহজ হয়ে যাবে বলে মনে করি।’’ বরং এক ধাপ এগিয়ে তিনি বলেছেন, ‘‘লা লিগার মতো ইটালি ক্লাব ফুটবলেও রোনাল্ডো যাতে বিরল কীর্তি স্থাপন করতে পারে, তার যাবতীয় দায়িত্ব আমার। ওকে প্রতি মুহূর্তে চাঙ্গা রাখাই প্রধান কাজ হবে আমার।’’

 এ দিকে, পল পোগবাকে পাওয়ার আশা এখনও ছাড়ছে না জুভেন্তাস। ফরাসি তারকাকে পাওয়ার জন্য মরিয়া রিয়াল মাদ্রিদ। তবে জুভেন্তাস কর্তারা মনে করছেন, পুরনো ক্লাবের প্রতি এখনও দুর্বলতা রয়েছে পোগবার। তাকে হাতিয়ার করেই ফরাসি  তারকার এজেন্ট মিনো রাইয়োলার সঙ্গে কথাবার্তাও চলছে জুভেন্তাসের।