• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিশ্বকাপের পরেও অবসর নয় ইনিয়েস্তার

Andrés Iniesta
প্রত্যয়: দেশের হয়ে আরও খেলার ইচ্ছে ইনিয়েস্তার। ফাইল চিত্র

বিশ্বকাপের পরেও দেশের জার্সি গায়ে মাঠে নামার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন না আন্দ্রে ইনিয়েস্তা। তাঁর আন্তর্জাতিক ফুটবল জীবনের মেয়াদ কত দিন, সে ব্যাপারে তিনি সিদ্ধান্ত নেবেন বিশ্বকাপের পরে, জানালেন ইনিয়েস্তা নিজেই।

দক্ষিণ আফ্রিকায় ২০১০ বিশ্বকাপ ফাইনালে নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে গোল করে যিনি স্পেনকে খেতাব এনে দিয়েছিলেন, সেই অভিজ্ঞ মিডফিল্ডার ইনিয়েস্তা স্পেন ছেড়ে যাচ্ছেন জাপানের ক্লাব ভিসেল কোবের হয়ে খেলতে। স্পেনের ক্লাব ছাড়লেও জাতীয় দলের হয়ে খেলা ছেড়ে দেবেন কি না, সেই ব্যাপারে অবশ্য এখনও সিদ্ধান্ত নেননি তিনি। নিজের দেশের সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘‘এটাই হয়তো আমার শেষ বিশ্বকাপ। তবে বিশ্বকাপটা হয়ে যাওয়ার পরে ভবিষ্যৎ নিয়ে ভেবে দেখব। জাপানে খেলা শুরু করি আগে। তার পরে না হয় পরিস্থিতি বিচার করে সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে।’’

জাপানের ক্লাব ফুটবলে খেলতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত তাঁর আন্তর্জাতিক ফুটবলেও যে প্রভাব ফেলতে পারে, সে ইঙ্গিত ইনিয়েস্তার কথায় স্পষ্ট। ৩৪ বছর বয়সি তারকা ফুটবলার বলেন, ‘‘এর পরেও স্পেনের হয়ে খেলে যাওয়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছি না। তবে বার্সেলোনা ছাড়ার পরে সেটা আরও কঠিন হয়ে উঠবে। কিন্তু বিশ্বকাপের আগে কোনও সিদ্ধান্তই নিতে পারব না। আগে এটা হয়ে যাক, তার পরে সব কিছু খতিয়ে দেখব।’’

ইনিয়েস্তা চান না, অতীতের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে স্পেন দলে তাঁর ডাক পড়ুক। এই নিয়ে বলেছেন, ‘‘অতীতে কী করেছি, সে জন্য নয়। দলের জন্য ভবিষ্যতে কী করতে পারি, সে কথা মাথায় রেখেই নিশ্চয়ই আমাকে জাতীয় দলে ডাকা হবে। আমি যদি ফিট থাকি, তবেই খেলব।’’ এটাই শেষ বিশ্বকাপ, তা অবশ্য মাথায় রেখে রাশিয়ায় মাঠে নামতে চান না বার্সেলোনার প্রাক্তন অধিনায়ক। বলেন, ‘‘রাশিয়ায় শেষ বিশ্বকাপ ব্যাপারটাই মাথায় রাখব না। বরং মনে করব এটাই প্রথম। চ্যালেঞ্জটা বেশ ভাল। বিদায় নেওয়ার ক্লান্তির চেয়ে বরং প্রতিটা মুহূর্ত উপভোগ করার কথা ভাবাই ভাল। এই সময়টার স্বাদ পেতে চাই আমি। কারণ, বাকি জীবনটা তো এই মুহূর্তগুলো সম্বল করেই কাটবে।’’

রাশিয়ায় ইনিয়েস্তাকে আরও উৎসাহিত করে তুলতে পারে বিশ্বকাপের ঠিক আগেই পাওয়া দেশের সর্বোচ্চ সরকারি ক্রীড়া সম্মান। যা মঙ্গলবার তাঁর হাতে তুলে দেন দেশের নতুন প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো স্যাঞ্চেজ। যে সম্মানের পোশাকি নাম ‘গ্র্যান্ড ক্রস অব দ্য রয়্যাল অর্ডার অব স্পোর্টস মেরিট’, সেই সম্মান তাঁকে দিয়ে ইনিয়েস্তার উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‘দক্ষিণ আফ্রিকায় বিশ্বকাপ ফাইনালে তোমার গোল আমাদের সবার মনে আছে। যে ভাবে তোমার এক সতীর্থের (দানি খার্কে) স্মৃতির উদ্দেশে সেই সাফল্য উৎসর্গ করেছিলে, তাতে প্রমাণ হয়েছিল এক সফল পেশাদারের পাশাপাশি তুমি একজন বড় মাপের মানুষও।’’

২০০৯-এ মাত্র ২৬ বছর বয়সে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান ইনিয়েস্তার প্রিয় বন্ধু খার্কে, যিনি স্পেনের জাতীয় দলেও তাঁর সঙ্গে খেলেছিলেন। তাঁর উদ্দেশেই বিশ্বকাপ ফাইনালের জয়সূচক গোল উৎসর্গ করেছিলেন ইনিয়েস্তা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন