• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

উরুগুয়ের আর্তি, গোলে ফিরুন সুয়ারেস, কাভানি

Luis Suárez
প্রস্তুতি: সৌদি আরবের বিরুদ্ধে নামার আগে সুয়ারেস। ছবি: এএফপি

রাশিয়া  ৩      :      মিশর  ১

রস্তভ বন স্টেডিয়ামে বিমান নামার আগে তার একটা ইঞ্জিনে আগুন লেগে যায়। কেঁপে যায় সৌদি আরব ফুটবল দলটাই। শেষ পর্যন্ত অবশ্য নিরাপদেই নেমে আসেন সৌদিরা। এবং তাঁদের মিডফিল্ডার বলে যান, রাশিয়া ম্যাচের মতোই এই বিমান বিভ্রাটের আতঙ্কও তাঁরা কাটিয়ে উঠেছেন। এটা মঙ্গলবার বিকেলের ঘটনা।

আতঙ্কিত উরুগুয়ে কোচ অস্কার তাবারেসও। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ১-০ জিতলেও তাঁর চিন্তা লুইস সুয়ারেস আর এডিনসন কাভানিকে নিয়ে। কারণ দু’জনই মিশরের বিরুদ্ধে গোল করতে পারেননি। সুয়ারেস সে দিন চারটি শট মারেন গোলে। তার একটা আবার মাত্র পাঁচ গজ দূর থেকে বাইরে মারেন। কম যাননি কাভানিও। অবশ্য তাঁর একটা শট পোস্টে লেগে ফিরে আসে। আর দু’বার গোলের বল সাজিয়ে দেন সুয়ারেসকে। সে দিন ৮৯ মিনিটে জোসে খিমিনেস হেডে গোল না করলে বড় বিপদে পড়ত উরুগুয়ে। এখনই কম সমালোচনা হচ্ছে না সুয়ারেসদের। আর মিশর তাদের আটকে দিলে? নিশ্চিত ভাবেই আরও চাপে পড়ে যেতেন তাঁরা।

সে দিক থেকে দেখলে ছন্দে ফেরার জন্য বুধবার একটা ভাল ম্যাচ পাচ্ছে উরুগুয়ে। আরও নির্দিষ্ট করে বললে সুয়ারেসরা। তার মধ্যে বার্সায় লিয়োনেল মেসির সতীর্থ আবার দেশের হয়ে শততম ম্যাচটি খেলবেন। এমনিতে সুয়ারেস আর কাভানির মধ্যে অন্য একটা আকচা-আকচিও কিন্তু আছে। সেটা দেশের হয়ে ৪২ গোল করা প্যারিস সাঁ জারমাঁ-র কাভানির সামনে সুয়ারেসকে ছাপিয়ে যাওয়ার লড়াই। উরুগুয়ের হয়ে সব চেয়ে বেশি ৫১টি গোল সুয়ারেসই করেছেন। আর বিশ্বকাপে বার্সা তারকার গোল পাঁচটি। কাভানির ২।

বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবল মস্তিষ্ক তাবারেস স্বীকার করেছেন, সুয়ারেসের গোল পাওয়াটা ভীষণ রকম দরকার। যদিও তাঁর সাবধানী মন্তব্য, ‘‘মিশর ম্যাচে ও গোল পায়নি। ভালও খেলেনি। জানি না ঠিক কী হয়েছিল। তবে সৌদি আরবের বিরুদ্ধেও ও গোল করবেই, এমন নিশ্চয়তা দিতে পারছি না।’’ এখানেই থামেননি সুয়ারেসদের গুরু ‘‘মারাদোনা (দিয়েগো), মেসি (লিয়োনেল) অনেক দিন গোল পায়নি এমনও হয়েছে। আর এটা কোনও পাপও না।’’ তাবারেস এও জানাতে ভোলেননি যে সুয়ারেস ভাল না খেললেও অন্তত তিন বার গোল করার জায়গায় চলে এসেছিলেন। যার দু’টি ক্ষেত্রে মিশরের গোলরক্ষক অসাধারণ সেভ করেন।

এই মুহূর্তে কিছুটা হলেও তাবারেসের সমস্যা রয়েছে মাঝমাঠ নিয়ে। তাই সৌদিদের বিরুদ্ধে তিনি খেলাতে পারেন কার্লোস স্যাঞ্চেস আর ক্রিশ্চিয়ান রদরিগেসকে। এই দু’জনকেই তিনি মিশরের বিরুদ্ধে পরিবর্ত ফুটবলার হিসেবে নামান। এবং দু’জনই ভাল খেলে দেন। তাই বৃহস্পতিবার তিনি রদরিগেসদের শুরুতেই নামাবেন বলে উরুগুয়ে দলের এরটি সূত্রের খবর। আসলে যে কোনও ভাবে এই ম্যাচটা জিতে থাকতে চান তাবারেস। এবং জিততে চান ব্যবধান যতটা সম্ভব বেশি রেখে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন