Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

সুনীলের জোড়া গোলে ভারতীয় ফুটবলের ইতিহাসে বেঙ্গালুরু এফসি

নিজস্ব সংবাদদাতা
১৯ অক্টোবর ২০১৬ ২১:৫৬
ইতিহাসে পৌঁছে যাওয়া বেঙ্গালুরু এফসি। ছবি: ফেসবুক।

ইতিহাসে পৌঁছে যাওয়া বেঙ্গালুরু এফসি। ছবি: ফেসবুক।

বেঙ্গালুরু এফসি ৩ (সুনীল ছেত্রী-২, জুনান)

জহর দারুল তাজিম ১ (রহিম)

মোট গোল: ৪-২

Advertisement

বেঙ্গালুরুর মাটিতে লেখা হল ভারতীয় ফুটবলের নতুন ইতিহাস। এএএফসি কাপের ফাইনালে পৌঁছে গেল বেঙ্গালুরু এফসি। কোনও ভারতীয় ক্লাব হিসেবে এই প্রথম। বয়স মাত্র তিন। আর সাফল্য আকাশ ছোঁয়া। দেশের সব টুর্নামেন্ট জিতে ফেলেছে। দু’বার আই লিগ। একবার ফেডারেশন কাপ। আর এ বার বেঙ্গালুরু এফসির মুকুটে নতুন পালক এএফসি কাপের ফাইনাল। শুধু বেঙ্গালুরু এফসির নয় ভারতীয় ফুটবলের মুকুটেও নতুন পালক সংযোজন করে দিলেন সুনীল ছেত্রীরা।

১১ মিনটেই গোল করে জহর দারুলকে এগিয়ে দিয়েছিলেন মহম্মদ সফিক বিন রহিম। অ্যাওয়ে গোল করে শুরুতেই ভাল জায়গায় চলে গিয়েও সেই ব্যবধান অবশ্য ধরে রাখতে ব্যর্থ অ্যাওয়ে টিম। ৪১ মিনিটেই বেঙ্গালুরুকে সমতায় ফেরান ভারত অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী। এই গোলটির ক্ষেত্রে কৃতিত্ব দিতে হবে ইউজিনসন লিংদোর মাপা কর্নারকে। প্রথমার্ধ ২-১ গোলে এগিয়ে শেষ করা পর দ্বিতীয়ার্ধে বাড়তি আত্মবিশ্বাস নিয়েই মাঠে নেমেছিলেন সুনীল, লিংদোরা। প্রথম লেগের ম্যাচে জহর দারুলের ঘরের মাঠে ১-১ ড্র করে ফিরেছিল বেঙ্গালুরু।

এদিন হ্যাটট্রিকও করতে পারতেন সুনীল যদি না দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই সহজ সুযোগ নষ্ট করতেন। তবে ৬৭ মিনিটে সেই সুযোগ নষ্ট পুষিয়ে দিলেন দ্বিতীয় গোল করে। ৭৫ মিনিটে ব্যবধান বাড়ান অ্যান্তনিও গোঞ্জালেজ ফার্নান্ডেজ। এর পরও সুনীলের সামনে গোলের সুযোগ এসে গিয়েছিল। কিন্তু আর ব্যবধান বাড়াতে পারেনি। বেঙ্গালুরুর মাটিতে এদিন যে ইতিহাস রচিত হল তা ভারতীয় ফুটবলকে কতটা সমৃদ্ধ করবে তা সময়ই বলবে কিন্তু ভারতীয় ফুটবলের ইতিহীসে লেখা থাকবে ১৯ অক্টোবর ২০১৬র দিনটি। লেখা থাকবে কান্তিরাভা স্টেডিয়াম।

আরও খবর

ইতিহাসের সামনে বেঙ্গালুরু এফসি

আরও পড়ুন

Advertisement