Advertisement
১৩ জুলাই ২০২৪

শেষ চার ওভারে ভুবিদের না দেখে অবাক ক্লাসেন

দক্ষিণ আফ্রিকাকে চতুর্থ ওয়ান ডে-তে জেতাতে বেশ ঝুঁকি নিয়েই ব্যাট করেছেন ক্লাসেন। তবে তা পুরোটাই পরিকল্পিত বলে জানিয়েছেন তিনি। রিভার্স সুইপ থেকে অফস্টাম্পের বাইরের বলও লেগ সাইডে মেরেছেন ক্লাসেন।

উৎসব: ম্যাচ জিতে ক্লাসেন। জোহানেসবার্গে। —ফাইল চিত্র

উৎসব: ম্যাচ জিতে ক্লাসেন। জোহানেসবার্গে। —ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ০৪:৪৪
Share: Save:

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চতুর্থ ওয়ান ডে-তে ডেথ ওভারে দুই রিস্টস্পিনারকে দিয়ে বল করিয়েছেন বিরাট কোহালি। বল করতে দেখা যায়নি যশপ্রীত বুমরা ও ভুবনেশ্বর কুমার-কে। কোহালির সেই সিদ্ধন্তেই কিছুটা অবাক হয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার অন্যতম জয়ের নায়ক হেনরিক ক্লাসেন। শনিবারের ম্যাচ শেষে সাংবাদিক বৈঠকে সে কথাই জানিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন উইকেটরক্ষক।

ডেভিড মিলার ও ক্লাসেনের জুটি চহাল ও কুলদীপকে বেশ সহজেই খেলে দিয়েছে। ২৮ ওভারে ২০২ রানের লক্ষ্য ছিল মিলারদের। তার মধ্যে ভারতের দুই রিস্টস্পিনারের জুটি ১১.৩ ওভার বল করে ১১৯ রান দিয়ে পেয়েছে তিন উইকেট। ম্যাচ শেষে ক্লাসেন বলেছেন, ‘‘আমি সত্যি আশ্চর্য। মিলার আর আমি ভেবেছিলাম শেষের চার ওভার বল করার জন্য ওদের (পেসার) রেখে দেওয়া হয়েছে। তবে গোটা সিরিজে স্পিনারদের সাফল্যের জন্যই হয়তো ওদের দিয়ে বল করানো হয়েছে।’’

কুইন্টন ডিকক-এর চোটের কারণে ভারতের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজে সুযোগ পেয়েছেন তিনি। ২৭ বলে অপরাজিত ৪৩ রানের ইনিংস খেলে প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার পেয়েছেন ক্লাসেন। তবে ভারতীয় স্পিনারদের এখনও সম্মান করছেন তাঁরা। ক্লাসেনের বক্তব্য, ‘‘আমি বলব না যে আমরা স্পিনারদের একেবারে ধরে ফেলেছি। সিরিজের শুরু থেকেই চায়নাম্যানকে (কুলদীপ) খেলতে আমাদের অসুবিধে হয়েছে।’’ সঙ্গে তিনি আরও যোগ করেন, ‘‘চহালকে খেলতে সে রকম সমস্যা না হলেও ও অনেক উইকেট পাচ্ছে। তবে কুলদীপকে বোঝার জন্য গত তিন দিন ধরে আমরা অনেক ধরনের অনুশীলন করেছি। নেটে খেটেছি। স্ট্র্যাটেজি তৈরি করেছি। এই ম্যাচে তা কাজে দিয়েছে।’’

ক্লাসেন-কথা

• ছাব্বিশ বছর বয়সি এই ক্রিকেটার প্রিটোরিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র।
বছর পাঁচেক আগে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক।

• কুইন্টন ডিককের সঙ্গেই প্রায় উত্থান। কিন্তু ডিককের ছায়ায় হারিয়ে যান।
ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে প্রথম সেঞ্চুরি গত বছর, টাইটান্সের হয়ে।

• রিভার্স সুইপ মারায় দক্ষ। জাতীয় অ্যাকাডেমির হয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়েছিলেন।
যেখানে স্পিনারদের বিরুদ্ধে সব রকম সুইপ খেলা রপ্ত করেন।

• উইকেটের সব দিকে শট খেলার দক্ষতার জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার জাতীয় অ্যাকাডেমির কোচ শুকরি কনরাড বলেছেন, ক্লাসেনের মধ্যে মহেন্দ্র সিংহ ধোনির ছায়া দেখছেন তিনি।

দক্ষিণ আফ্রিকাকে চতুর্থ ওয়ান ডে-তে জেতাতে বেশ ঝুঁকি নিয়েই ব্যাট করেছেন ক্লাসেন। তবে তা পুরোটাই পরিকল্পিত বলে জানিয়েছেন তিনি। রিভার্স সুইপ থেকে অফস্টাম্পের বাইরের বলও লেগ সাইডে মেরেছেন ক্লাসেন। এ বিষয়ে তিনি বলেছেন, ‘‘যে দিকে ফাঁকা পেয়েছি, সে দিকেই মারার চেষ্টা করেছি। চহাল অনেকটাই বাইরে বল করছিল এবং বেশ ভাল বাউন্স পাচ্ছিল। আমরা পরিকল্পনামাফিক শটই খেলেছি।’’

তবে ভারতের বিরুদ্ধে পাঁচ উইকেটে জয়ই তাঁদের আগামী দু’ম্যাচের জন্য বাড়তি আত্মবিশ্বাস দেবে বলে জানিয়েছেন ক্লাসেন। বলেছেন, ‘‘টানা তিনটি ম্যাচ হেরে আত্মবিশ্বাসের দিক থেকে পিছিয়ে পড়েছিলাম আমরা। তবে এই ম্যাচ জেতার পরে তা ফিরে পেলাম। পাশাপাশি এ বি (ডিভিলিয়ার্স)-এর দলে যোগ দেওয়াতে দলের পরিবেশই আলাদা হয়ে গিয়েছে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE