Advertisement
২০ জুন ২০২৪

চোট নিয়ে গ্র্যান্ড স্ল্যামে খেলা কখনওই ঠিক নয়

বর্তমান টেনিস সার্কিটে ঘাসের কোর্টের বিশেষজ্ঞ খেলোয়াড় কিন্তু খুব বেশি নেই। সংখ্যাটা হয়তো জনা দশেক হবে। তার মধ্যে চার জন এ বার সেমিফাইনালে লড়বে।

বরিস বেকার
শেষ আপডেট: ১৪ জুলাই ২০১৭ ০৪:১৯
Share: Save:

উইম্বলডনের মাঝপথে এসে সেমিফাইনালিস্টদের নিয়ে আমাদের যে ধারণাটা তৈরি হয়েছিল, তার সঙ্গে এখন বাস্তবের অনেক তফাত। একটা অঘটন, দু’টো চোট— সব মিলিয়ে সেমিফাইনালে চলে এসেছে তিনটে অপ্রত্যাশিত নাম। যার সঙ্গে অবশ্যই রয়েছে এক জন রাজা। তবে এই চার সেমিফাইনালিস্টের মধ্যে একটা মিল রয়েছে। বর্তমান টেনিস সার্কিটে ঘাসের কোর্টের বিশেষজ্ঞ খেলোয়াড় কিন্তু খুব বেশি নেই। সংখ্যাটা হয়তো জনা দশেক হবে। তার মধ্যে চার জন এ বার সেমিফাইনালে লড়বে।

এ বার আসি রাজার কথায়। হ্যাঁ, রজার ফেডেরার যে রাজকীয় মেজাজে ওর প্রতিপক্ষদের উড়িয়ে দিচ্ছে, তাতে রাজা ছাড়া আর কী বলব ওকে। শুরু থেকেই বলে আসছিলাম, এ বারের উইম্বলডন জেতার ব্যাপারে রজার একেবারে হট ফেভারিট। সে কথাটাই আবার মনে করিয়ে দিতে চাই। বুধবার মিলোস রাওনিচের বিরুদ্ধে অসাধারণ টাচে ছিল ফেডেরার। ফেডেরারের রিটার্নে এতটাই গতি ছিল যে রাওনিচ নেটের কাছেই আসতে পারছিল না। আর রাওনিচ যখন বেসলাইনে দাঁড়িয়ে খেলছিল, অসম্ভব সব অ্যাঙ্গেলে ফোরহ্যান্ড মারছিল ফেডেরার। সেমিফাইনালে ওঠার পথে সাত বারের উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন কোর্টে পুরো রাজত্ব করে গেল। ফেডেরারের সামনে এ বার টমাস বার্ডিচ। নোভাক জকোভিচ চোট পেয়ে সরে যাওয়ায় ও সেমিফাইনালে উঠেছে। বার্ডিচ কিন্তু এখানে সব সময় ভালই খেলে। বছরের শুরুতে একটু নড়বড়ে লাগলেও এখন ও ছন্দে আছে। তবে ফেডেরারের বিরুদ্ধে ওকে অবশ্যই সেরাটা দিতে হবে। ভুললে চলবে না, ও আগেও ফেডেরারকে হারিয়েছে। তাই জানে, এই কাজটা কঠিন হলেও অসম্ভব নয়। বার্ডিচকে কোর্টে নেমে খেলাটা উপভোগ করতে হবে। আর হ্যাঁ, শুরুটা ভাল করতে পারলে বার্ডিচের আত্মবিশ্বাসও বাড়বে।

আরও পড়ুন: ফেডেরারকে রোখার মতো কাউকে দেখা যাচ্ছে না

জকোভিচ এবং মারের হার ছিল অনভিপ্রেত।

গত বছর জকোভিচকে হারিয়ে শিরোনামে চলে এসেছিল স্যাম কুয়েরি। এ বছর ও ব্রিটিশদের হৃদয় রক্তাক্ত করল অ্যান্ডি মারেকে হারিয়ে। মারেও অবশ্য খেলার মতো অবস্থায় ছিল না। ও যে ভাবে খোঁড়াচ্ছিল, দেখে খুব খারাপ লাগল। জকোভিচ এবং মারে, দু’জনেরই বয়স তিরিশ। ওদের কিন্তু ভবিষ্যতের কথা ভেবে পরিকল্পনা করা উচিত। রেকর্ডের কথা ভেবে কখনওই নিজের কেরিয়ার সঙ্কটে ফেলা উচিত নয়। চোট নিয়ে গ্র্যান্ড স্ল্যামে খেলতে নামাটা কখনওই ভাল ভাবনার পরিচয় নয়। মারের চোট থেকে ফায়দা তুললেও কুয়েরি কিন্তু ঘাসের কোর্টেরই প্লেয়ার। ও কড়া চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলতে পারে মারিন চিলিচকে।

আমার ভবিষ্যদ্বাণী? এই ঘাসের কোর্ট বিশেষজ্ঞদের কাউকেই উড়িয়ে দেওয়া যায় না। কিন্তু বার্ডিচ অসাধারণ না খেললে ফেডেরারকে হারাতে পারবে না। (গেমপ্ল্যান)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE