Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

‘আমাদের ছেলেরা শট বাছাই করতেই জানে না’

রাজীব ঘোষ
নয়াদিল্লি ০২ ডিসেম্বর ২০১৭ ০৪:৩৩
হতাশ: শ্রীলঙ্কার পারফরম্যান্সে বিরক্ত জয়বর্ধনে। —ফাইল চিত্র।

হতাশ: শ্রীলঙ্কার পারফরম্যান্সে বিরক্ত জয়বর্ধনে। —ফাইল চিত্র।

প্রশ্ন: বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে তো আপনার দল বেশ ভাল খেলছে। লিগ টেবলে দ্বিতীয়। বিপিএলের ফাঁকে ভারত-শ্রীলঙ্কা সিরিজও দেখছেন নিশ্চয়ই?

মাহেলা: সে ভাবে দেখছি না। দেখতে ভাল লাগছে না। আমাদের জাতীয় দলকে এত অসহায় অবস্থায় যে দেখিনি কখনও। হাইলাইটস দেখি সময় পেলে।

Advertisement

প্র: কিন্তু এত অসহায় অবস্থা হল কেন আপনাদের ছেলেদের? ভারত খুব ভাল দল বলে? না অন্য কারণে?

মাহেলা: ভারত তো ভাল দল বটেই। কিন্তু আমাদের ছেলেরাও খুব খারাপ খেলছে। এরা কেউ ক্রিজে টিকে থেকে ব্যাট করতেই জানে না। বড় শট নেওয়ার জন্য ছটফট করছে। কী আজেবাজে শট খেলছে সব। চোখে দেখা যাচ্ছে না।

প্র: এর জন্য কি কোচেরা দায়ী নন? নিক পোথাস আছেন। গুরুসিংঘের মতো প্রাক্তন ক্রিকেটার আছেন। ওঁরা কি ঠিক মতো বোঝাতে পারছেন না ছেলেদের?

মাহেলা: শেখাতে পারছে কি না, জানি না। কিন্তু ছেলেদের সঙ্গে ক্রিজে নেমে তো আর ব্যাট করে দিয়ে আসতে পারে না কোচেরা। ওদের ব্যাটিং দেখে মনে হচ্ছে, কোন বলে কী শট নিতে হয়, সেটাই ওরা ঠিকমতো জানে না। উইকেটগুলো ছুড়ে দিয়ে চলে আসছে।

প্র: নিজেদের দেশে ০-৯ হারের পরে এ বার ভারতে এসেও ব্যর্থতা শুরু। এমন হবে, তা কি আপনার জানা ছিল না?

মাহেলা: এই প্রশ্নের উত্তরে না বললে, সেটা মিথ্যে বলা হবে। তবে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সিরিজের পরে ভেবেছিলাম ওরা কিছুটা হলেও উন্নতি করেছে। এখন দেখছি কিছুই উন্নতি হয়নি। আবার সেই একই ভুলগুলো ফিরে আসতে দেখছি ওদের ব্যাটিংয়ে। বোলিংও তো খুব খারাপ হচ্ছে। কুড়ি উইকেট তোলার ক্ষমতাই নেই।

প্র: ইডেনে প্রথম টেস্টে কিন্তু কিছুটা লড়েছিল শ্রীলঙ্কা।

মাহেলা: লড়ে তো কোনও লাভ হল না। ভারত জয়ের মুখেই ছিল। আর আধ ঘণ্টা খেলা হলেই জিতে যেত। আবহাওয়াও বাঁচিয়ে দিল শ্রীলঙ্কাকে।

প্র: আপনাদের দেশে অনেকে বলছেন, দলটা সন্ধিক্ষণে রয়েছে বলে এমন ফল হচ্ছে। আপনি কি একমত?

মাহেলা: সেটা একটা কারণ হতে পারে। তবে আবার এটাও ঠিক যে, আন্তর্জাতিক স্তরের ক্রিকেটের জন্য তৈরি নয়, এ রকম ক্রিকেটার দলে রয়েছে। তাই তারা এই চাপটা নিতে পারছে না। আমরাও যখন নতুন ছিলাম, তখন এত ভয়ে ভয়ে মাঠে নামতাম না। আমারও টেস্ট অভিষেক ভারতের বিরুদ্ধে। জীবনের প্রথম টেস্ট ইনিংসেই ৬৬ রান করেছিলাম। তার পরে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পরপর দুটো হাফ সেঞ্চুরি ও একটা সেঞ্চুরি করি। প্রায় দু’বছর পরে ফের যখন ভারত আমাদের দেশে আসে, তখন একটা ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলাম।

প্র: শোনা গিয়েছিল, আপনি ও সঙ্গকারা শ্রীলঙ্কা দলের দায়িত্ব নেবেন। আপনাদের মতো ক্রিকেটার থাকতে অন্যদের দায়িত্ব দিতে হচ্ছে কেন? এ বার দায়িত্ব নেবেন?

মাহেলা: জানি না। এ ব্যাপারে সরকারি ভাবে কোনও কথাই হয়নি বোর্ডের সঙ্গে। যতক্ষণ না পাকাপাকি কথা হচ্ছে বা প্রস্তাব পাচ্ছি, কিছু বলতে পারব না।

প্র: শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটারদের তৈরি না হয়ে ওঠার কারণ কী মনে করছেন?

মাহেলা: আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটের অবস্থা খুব খারাপ। সে জন্যই ছেলেরা তৈরি হচ্ছে না। এ ব্যাপারে আমাদের বোর্ডের উচিত ভারতীয় ঘরোয়া ক্রিকেটের মডেল অনুসরণ করা। আপনাদের আইপিএল থাকলেও রঞ্জি ট্রফির কদর এখনও যথেষ্ট। চার দিনের ম্যাচ খেলে টেস্ট ম্যাচের ধারণাটা তৈরি হয়ে যাচ্ছে ওদের। আমাদের দেশে যা হয় না। আমাদের দেশে এখন স্কুলেও টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট হচ্ছে। ফলে ছেলেরা বড় ফর্ম্যাটে খেলা শিখছে না।

প্র: সিরিজ তো এখনও ড্র করার সুযোগ আছে। দিল্লি টেস্টে কি কোনও আশা দেখতে পাচ্ছেন?

মাহেলা: পারফরম্যান্সে উন্নতি না হলে কী করে জিতবে ওরা? রাতারাতি সেটা সম্ভব বলে মনে হয় না। আমি ভুল প্রমাণ হলে অবশ্য খুব খুশি হব।

প্র: সব শেষে বিরাট কোহালির অধিনায়কত্ব ও পারফরম্যান্স নিয়ে কী বলবেন?

মাহেলা: যত বলব, ততই কম মনে হবে। বিরাট অন্য গ্রহের ক্রিকেটার। ক্রিকেটটা ওর মজ্জায়। দলটাও সে রকমই পেয়েছে ও। ভাল দল না পেলে কিন্তু একা ক্যাপ্টেন কিছু করতে পারে না। আইপিএলেই তা দেখা গিয়েছে। তবে বিরাট গ্রেট। আমাদেরও যদি এ রকম একটা বিরাট কোহালি থাকত, তা হলে হয়তো আমাদের ক্রিকেটের চেহারাও অন্য রকম হতো। বিরাট না পাই, আর একটা সঙ্গকারা আসুক শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটে।

প্র: আর একটা মাহেলা জয়বর্ধনে চাই না?

মাহেলা: (হেসে) চাইলেই কি আর পাওয়া যায়?



Tags:
Cricket Mahela Jayawardeneমাহেলা জয়বর্ধনে

আরও পড়ুন

Advertisement