Advertisement
২০ এপ্রিল ২০২৪

জোড়া গোলে নায়ক এমবাপে, ট্রফি নিয়ে উৎসবে নেমাররা

চ্যাম্পিয়ন পিএসজি ৩৭ ম্যাচে এখন পর্যন্ত পেয়েছে ৯১। তিন মিনিটেই দারুণ বাঁক খাওয়ানো শটে ১-০ করে দেন দি মারিয়া। কাভানি ও এমবাপের করা দ্বিতীয় এবং তৃতীয় গোলেও অবদান দি মারিয়ার।

উৎসব: নির্বাসনে থাকায় পিএসজির ম্যাচে খেলতে না পারলেও লিগ জয়ের ট্রফি নিলেন নেমার। এএফপি

উৎসব: নির্বাসনে থাকায় পিএসজির ম্যাচে খেলতে না পারলেও লিগ জয়ের ট্রফি নিলেন নেমার। এএফপি

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২০ মে ২০১৯ ০৫:১০
Share: Save:

ম্যাচটা ছিল নিছকই নিয়মরক্ষার। কিন্তু শনিবার ফরাসি লিগ ওয়ানের ম্যাচ দিজঁ এসিও-র বিরুদ্ধে প্যারিস সাঁ জারমাঁ (পিএসজি) ৪-০ জিততেই উৎসবে মাতলেন নেমার দা সিলভা স্যান্টোস জুনিয়রেরা। এই ম্যাচেও জোড়া গোল করলেন কিলিয়ান এমবাপে। একটি করে গোল অ্যাঙ্খেল দি মারিয়া ও এদিনসন কাভানির।

চ্যাম্পিয়ন পিএসজি ৩৭ ম্যাচে এখন পর্যন্ত পেয়েছে ৯১। তিন মিনিটেই দারুণ বাঁক খাওয়ানো শটে ১-০ করে দেন দি মারিয়া। কাভানি ও এমবাপের করা দ্বিতীয় এবং তৃতীয় গোলেও অবদান দি মারিয়ার। এই দু’টি গোলই হল খুব কাছ থেকে মারা শটে। আর প্রথমার্ধেই ৩-০ এগিয়ে যায় পিএসজি। সমর্থককে আঘাত করতে যাওয়ার অপরাধে এই ম্যাচ খেলতে না পারলেও পাক দি ফ্রঁস স্টেডিয়ামে হাজির ছিলেন নেমারও। ম্যাচ শেষে লিগজয়ের স্মারক ট্রফি নিয়ে তিনিও উৎসবে যোগ দেন।

শনিবার জোড়া গোল করে নায়ক অবশ্য কুড়ি বছর বয়সি এমবাপে। নিজের দ্বিতীয় ও দলের চতুর্থ গোলটি তিনি করেন ৫৬ মিনিটে। যে গোল এ বারের লিগ ওয়ানে তাঁর ৩২তম। সেই ১৯৬৫-’৬৬ মরসুমে নান্তের ফিলিপ গঁজের ৩৬ গোলের পরে এটাই সর্বোচ্চ। এমবাপের সঙ্গে লিয়োনেল মেসিরও অন্য এক লড়াই চলছে। সেটা ইওরোপের সেরা পাঁচটি লিগের মধ্যে সবথেকে বেশি গোল করার প্রতিযোগিতার। মেসি শেষ পর্যন্ত কত গোল করেন জেনেই এমবাপে লিগ ওয়নে পিএসজি-র হয়ে শেষ ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবেন পরের শুক্রবার ঘাঁসের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচে।

এমবাপের মতোই এই মরসুমে বেশ ভাল খেললেন পিএসজি-র উরুগুয়ান স্ট্রাইকার কাভানি। জল্পনা চলছিল, নতুন মরসুমে তিনি ইটালিতে তাঁর পুরনো ক্লাব নাপোলিতে ফিরে যাবেন। কাভানি কিন্তু সেই সম্ভাবনা উড়িয়ে বললেন, ‘‘আগেও বলেছি আর এখনও বলছি যে ক্লাবের সঙ্গে চুক্তিকে সম্মান জানানোটা আমি কর্তব্য বলে মনে করি। আপাতত এখানেই থাকতে চাই। এখানে আমাকে আরও অনেক কিছু করে দেখাতে হবে। সেটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নিচ্ছি। তা ছাড়া এই ক্লাবটাকে ভালবেসে ফেলেছি। এখানে আমার পরিবারও খুব আনন্দে আছে।’’ কাভানি অবশ্য যোগ করেছেন, ‘‘আমি কী চাইছি তার উপর সব কিছু নির্ভর করে না। ক্লাব প্রেসিডেন্ট, আর কর্মকর্তারা কী সিদ্ধান্ত নেন সেটাও একটা ব্যাপার।’’

একটি ম্যাচে পেনাল্টি মারা নিয়ে এই মরসুমে নেমারের সঙ্গে মাঠেই বিতর্কে জড়িয়েছিলেন কাভানি। অনেকে মনে করছেন, তিনি যে ব্রাজিলীয় তারকার থেকে কোনও অংশে কম যান না, সেটাই ক্লাবে থেকে দেখিয়ে দিতে চান। উরুগুয়ান তারকা হয়তো সেই কারণে বলছেন, এখনও অনেক কিছু প্রমাণ করতে চান। পিএসিজ-র ম্যানেজার থোমাস টুহেল বলেছেন, ‘‘কাভানি অবশ্যই আমার দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। যে কোনও অবস্থায় আমি চাইব ও পিএসজি-তেই থাকুক।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Football PSG Neyamr France Ligue 1
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE