Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

অবিশ্বাস্য এই ফেরার কাহিনি

তিনি— স্মৃতি মান্ধানা। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে যিনি দেখিয়ে দিলেন ফর্ম সাময়িক কিন্তু প্রতিভা চিরস্থায়ী। মেয়েদের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে ৭২ বলে ৯০ রান করলেন বাঁ হাতি ব্যাটিং প্রতিভা। দাপুটে ব্যাটিংয়ে যিনি সম্মোহিত করলেন ক্রিকেটবিশ্বকে।

মেয়েদের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে ৭২ বলে ৯০ রান করলেন স্মৃতি মান্ধানা।

মেয়েদের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে ৭২ বলে ৯০ রান করলেন স্মৃতি মান্ধানা।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৫ জুন ২০১৭ ০৬:৪৭
Share: Save:

২০১৬-র শুরুতে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তিনি বুঝিয়ে দিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক মানের প্রতিভা আছে তাঁর মধ্যে। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দুরন্ত পারফরম্যান্স উপহার করে ডাক পেয়েছিলেন বিগ ব্যাশে খেলার।

অস্ট্রেলিয়ান বিগ ব্যাশ হওয়ার কথা ছিল তাঁর স্বপ্নের মঞ্চ। উল্টে হয়ে দাঁড়ায় জীবনের অন্যতম কঠিন অধ্যায়। মাঠে ব্যাট নিয়ে বোলারদের শাসন করার বদলে তাঁকে হাসপাতালেই অধিকাংশ দিন কাটাতে হয়। লিগামেন্ট ছিঁড়ে প্রশ্ন উঠে যায় আদৌ প্রত্যাবর্তনে আবার সেই সোনার ফর্ম ধরে রাখতে পারবেন? নাকি ভারতীয় ক্রিকেট মহাকাশের বিলুপ্ত তারাদের মধ্যে একজন হবেন তিনি?

পুনম রাউত আর দীপ্তি শর্মা তখন একের পর এক দুরন্ত ইনিংস খেলছেন। তাঁর দলে ফেরার আশা আরও কমছে। কিন্তু তাতেও তিনি আত্মবিশ্বাস হারাননি। ডাক্তারের সবুজ সঙ্কেত পাওয়ার পরে প্রতিদিন নেটে প্র্যাকটিস করে গিয়েছেন। কোনও প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট ম্যাচ খেলা ছাড়াই তাই তাঁকে নিয়ে ঝুঁকি নেয় ভারতীয় মেয়েদের ক্রিকেট দল। বিশ্বকাপের দলে জায়গা পান তিনি।

আর বাকিটা ইতিহাস।

তিনি— স্মৃতি মান্ধানা। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে যিনি দেখিয়ে দিলেন ফর্ম সাময়িক কিন্তু প্রতিভা চিরস্থায়ী। মেয়েদের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে ৭২ বলে ৯০ রান করলেন বাঁ হাতি ব্যাটিং প্রতিভা। দাপুটে ব্যাটিংয়ে যিনি সম্মোহিত করলেন ক্রিকেটবিশ্বকে। এগারোটা বাউন্ডারি ও দুটো ছয় মেরে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করলেন স্মৃতি। মাত্র দশ রানের জন্য সেঞ্চুরিটা করতে না পারলেও ইংল্যান্ডের মাটিতে তাঁর ৯০ রান ভারতকে দুর্দান্ত শুরু করতে সাহায্য করে। তিনি যখন আউট হন তখন ভারত ১৪৪ রান তুলে ফেলেছে।

৯০ রানের সৌজন্যে রেকর্ডের খাতায় চলে গেলেন তিনি। বিশ্বকাপে ভারতীয় মেয়েদের মধ্যে এটা পঞ্চম সর্বোচ্চ রান। বিশ্বকাপের কোনও অ্যাওয়ে ম্যাচে এটা কোনও ভারতীয় মেয়ের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান।

তবে ডার্বির মাঠে স্মৃতির এই ইনিংসের হয়তো সাক্ষী থাকতেই পারত না ক্রিকেটবিশ্ব যদি না ন’বছর বয়সে খবরের কাগজে স্থানীয় এক ক্রিকেট ক্লাবে ট্রায়ালের কথা পড়তেন তিনি। মাত্র ১১ বছর বয়সে মহারাষ্ট্রের অনূর্ধ্ব ১৯ দলে সুযোগ পান। সিনিয়র দলের হয়ে অভিষেকেই সৌরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ১৫৫ রান করে ভারতীয় ঘরোয়া ক্রিকেটে সাড়া ফেলে দেন তিনি।

প্রচার পছন্দ করেন না। যুবরাজ সিংহের ভক্ত। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচ জিতিয়ে স্মৃতি বলছেন, ‘‘শেষ পাঁচ মাস খুব কঠিন গিয়েছে। কিন্তু ফিজিওদের ধন্যবাদ দিতে চাই।’’

কে স্মৃতি মান্ধানা?

• ১৮ জুলাই ১৯৯৬ সালে সাংলিতে জন্মগ্রহণ করেন স্মৃতি মান্ধানা। ন’বছর বয়স থেকে ক্রিকেট খেলছেন।

• সৌরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে মহারাষ্ট্রের হয়ে ১৫৫ রান করে ঘরোয়া ক্রিকেটে সাড়া ফেলে দেন তিনি।

• ২০১৩-তে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারতের হয়ে প্রথম ওয়ান ডে খেলেছিলেন। ভারতের হয়ে ২টো টেস্টও খেলেছেন।

• আন্তর্জাতিক ওয়ান ডে-তে তাঁর ১ সেঞ্চুরি ও ৬ হাফসেঞ্চুরি আছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE