প্রাণিসম্পদ বিকাশ দফতরের সচিব অনিল বর্মাকে সরিয়ে দিল নবান্ন।

পশু চিকিৎসকেরা তাঁর বিরুদ্ধে দফতরেই পোস্টার দিয়েছিলেন। জুলাইয়ে তাঁর ‘স্বেচ্ছাচারিতা’র বিরুদ্ধে অবস্থান-বিক্ষোভে বসারও পরিকল্পনা করেছিলেন। এর আগে স্বাস্থ্য দফতরে থাকার সময় সরকারি চিকিৎসকেরা তাঁর বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন। কারণ, চিকিৎসকদের সপ্তাহে ৪২ ঘণ্টা হাসপাতালে থাকার নির্দেশ জারি করেছিলেন বর্মা।  এ বার পশু চিকিৎসকদের একের পর এক সরকারি প্রকল্পে শামিল করতে চেয়ে চাপ দিচ্ছিলেন তিনি। তাই আন্দোলনে নামার হুমকি দেন পশু চিকিৎসকেরা। সরকার তাঁকে প্রশাসনিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (এটিআই)-এর ডিরেক্টর জেনারেল পদে বদলি করেছে। তাঁর জায়গায় আসছেন বিপি গোপালিকা। এটিআই-এর অধিকর্তা চন্দন সিংহকে স্টেট গেজেটিয়ারের সম্পাদক করা হয়েছে। পদটির কোনও গুরুত্বই নেই। গোপালিকার হাতে থাকা পরিবেশ দফতর এখন থেকে দেখবেন কর্মিবর্গ বিষয়ক দফতরের সচিব প্রভাত মিশ্র।