বেতন বৈষম্যের বিরুদ্ধে এবং হাইকোর্টের রায়কে মান্যতার দাবিতে রাজ্য জুড়ে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করল বৃহত্তর গ্রাজুয়েট টিচার অ্যাসোসিয়েশন (বিজিটিএ)। বৃহস্পতিবার শিক্ষক দিবসের দিন কালো ব্যাজ পরে প্রতীকী বিক্ষোভ দেখান রাজ্যের বেশির ভাগ স্কুলেরই শিক্ষক-শিক্ষিকারা।

সম্প্রতি রাজা সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার থেকে রানি রাসমনি অ্যাভেনিউ পর্যন্ত মিছিল করেন শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একাংশ। রানি রাসমণি অ্যাভেনিউয়ে একটি প্রতিবাদ সভারও আয়োজন করেছিলেন তাঁরা। সেখানে কবি মন্দ্রাকান্তা সেন, রাজ্য বিজেপির অন্যতম সাধারণ সম্পাদক রাজু মুখোপাধ্যায় এবং সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বিজিটিএ-র দাবির পক্ষে ভাষণও দেন।

বিজিটিএ-র সাধারণ সম্পাদক সৌরেন ভট্টাচার্য এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘শিক্ষকদের সম্মান করার কথা মুখে বললেও বাস্তবে রাজ্য সরকার তা করে না। স্নাতক শিক্ষকদের বেতন স্কেল হওয়া উচিত ৯ হাজার থেকে ৪০ হাজার ৫০০ টাকা এবং গ্রেড পে ৪ হাজার ৬০০ টাকা। কিন্তু এ রাজ্যে বাস্তবটা অন্য।’’ এই বিষয়ে রাজ্যকে অনেক বার জানানো সত্ত্বেও কোনও রকম কর্ণপাত করেনি এবং কলকাতা হাইকোর্ট এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিলেও সরকারের কোনও হেলদোল নেই বলে অভিযোগ তাঁর। সে কারণেই এ বার রাস্তায় নেমে আন্দোলনের পথ দেখতে হচ্ছে স্নাতক শিক্ষক-শিক্ষিকাদের, এমনটাই জানান তিনি। পাশাপাশি তাঁর আরও সংযোজন, রাজ্য সরকার দ্রুত এ বিষয়ে ব্যবস্থা না নিলে আরও বড় আন্দোলনের পথে হাঁটতে পারে বিজিটিএ।

আরও পড়ুন: বিধানসভায় হাতাহাতির উপক্রম, ওয়েলে নেমে পরিস্থিতি সামলালেন মমতা